আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ বোমা, গুলি আর ধ্বংসস্তুপ এর মধ্যেই প্রতিদিন একটু একটু করে বাঁচার লড়াই করছে ওঁরা। এই বাঁচার লড়াই বাকি সবটাই তুচ্ছ হয়ে গিয়েছে সিরিয়ায়। আর এই সুযোগেরই সদব্যবহার করছে এক শ্রেণির মানু্ষ। খাবার আর সংস্থানের বিনিময়ে নারীর সম্ভ্রম কিনে নিচ্ছে তারা। সন্তানের মুখে দুমুঠো অন্ন তুলে দিতে এই মূল্য তুচ্ছ হয়ে গিয়েছে সিরিয়ার মেয়েদের কাছে। একদিকে আগ্রাসন আর একদিকে যৌন শোষন পাল্লা দিয়ে গ্রাস করছে। 
সম্প্রতি রাষ্ট্রপুঞ্জের একদল পর্যবেক্ষক সিরিয়ায় ত্রাণ বিলি করতে গিয়ে দেখেছেন, কোনও মহিলা সেখানে যেতে রাজি হচ্ছেন না। যাঁরা যাচ্ছেন তাঁরা নিজেদের সম্ভ্রম আগেই বিকিয়ে দিয়েছেন।

ত্রাণের বিনিময় তাঁদের কাছে কিছু চাওয়া হচ্ছে না দেখে নিজেরাই অবাক হয়ে গিয়েছেন। রাষ্ট্রপুঞ্জের ত্রাণ শিবিরে আসা মহিলাদের সঙ্গে কথা বলে তাঁরা জানতে পেরেছেন, অনেকেই আসেন তাঁদের ভেঙে চুরে যাওয়া আশ্রয় শিবিরে। ত্রাণ দেওয়ার বিনিময়ে সেই সব শিবিরে থাকা মেয়ের সঙ্গে রাত কাটাকে চান। এই প্রস্তাব থেকে বাদ যান না কিশোরীরাও। অনেকেই আবার কয়েকদিনের জন্য বিয়ে করে নিয়ে যান। ভোগ শেষ হলে তালাক নিয়ে ফিরে আসে সেই সব মেয়েরা। কিন্তু স্বাভাবিক জীবনে ফেরা হয় না। একের পর এক প্রস্তাব আসতে থাকে। এভাবেই চলে জীবন। এই নিয়ে এখন আর তাঁরা বড় বেশি মাথা ঘামান না। সিরিয়ায় থাকতে গেলে এভাবেই বাঁচতে হবে। মেনে নিয়েছেন তাঁরা। ‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top