আজকাল ওয়েবেডস্ক:‌ মার্চের মাঝামাঝি লকডাউন। করোনা রুখতে সেই থেকে প্রায় পাঁচ মাস বন্ধ ছিল স্কুল, কলেজ। করোনা এখন অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে। তাই পাকিস্তানে খুলে গেল হাইস্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়। অবশ্যই কড়া সুরক্ষাবিধি মানার নির্দেশ দিয়েছে ইমরান খানের সরকার। 
১৬ মার্চ পাকিস্তানে লকডাউন ঘোষণা হয়। তখনই স্কুল, কলেজ বন্ধ হয়। বার্ষিক পরীক্ষাও বাতিল করা হয়। তার পর অফিস, কাছারি খুললেও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধই ছিল। ১৫ সেপ্টেম্বর সেদেশে খুলল হাই স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়। পঞ্চম থেকে অষ্টম শ্রেণীর পড়ুয়ারা স্কুল যাবে ২৩ সেপ্টেম্বর থেকে। আর প্রাথমিক বিদ্যালয় খুলছে ৩০ সেপ্টেম্বর।
সুরক্ষাবিধি মেনে একটি ক্লাসে ২০ জনের বেশি পড়ুয়া বসতে পারবে না। তাই ক্লাসের পড়ুয়াদের বিভিন্ন দলে ভাগ করে দেওয়া হচ্ছে। এক–একটি দল পর্যায়ক্রমে এক এক দিন স্কুলে আসবে। শিক্ষক এবং পড়ুয়াদের মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক। স্কুলে ঢোকার মুখে হাত ধোওয়া এবং স্যানিটাইজ করার ব্যবস্থা রাখতে হবে। 
মঙ্গলবার পর্যন্ত পাকিস্তানে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন মোট তিন লক্ষ দু’‌ হাজার ৪২৪ জন। শেষ ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছেন ৪০৪ জন। মারা গেছেন ছ’‌ জন। দেশে করোনায় এখন পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ৬,৩৮৯ জনের। সুস্থ হয়ে উঠেছেন দু’‌ লক্ষ ৯০ হাজার ২৬১ জন। ৫৬৩ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। 
সবথেকে বেশি করোনা আক্রান্ত হয়েছেন সিন্ধ প্রদেশে। সেখানে আক্রান্ত এক লক্ষ ৩২ হাজার ২৫০ জন। তার পর যথাক্রমে পাঞ্জাব (‌৯৭,৮১৭)‌, খাইবার পাখতুনখোয়া (‌৩৭,০৭৯)‌, ইসলামাবাদ (‌১৫,৯৬২)‌, বালুচিস্তান (‌১৩,৬২১)‌, গিলগিট বালুচিস্তান (‌৩,২৬৯)‌, পাক অধিকৃত কাশ্মীর (‌২,৪২৬)‌। 

জনপ্রিয়

Back To Top