আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ শুক্লা পঞ্চমী তিথিতে বাংলাদেশ জুড়ে সাড়ম্বরে চলেছে মা সরস্বতীর আরাধনা। বাগদেবীর  চরণে পুষ্পার্ঘ্য নিবেদন করেছেন বাংলাদেশের হিন্দু সম্প্রদায়ের অগনিত মানুষ। সকাল থেকেই শুরু হয়েছে পঞ্চমী তিথি। তাই অনেকের বাড়িতে শনিবারই দেবী সরস্বতীর পুজো অনুষ্ঠিত হয়েছে। রবিবার সকাল ১১টার মধ্যেই পঞ্চমী তিথির সমাপ্তি ঘটেছে। তারই মধ্যে মৃন্ময়ী দেবতার আরাধনা শান্তিপূর্ণভাবে সমাপ্ত করেছেন বাংলাদেশের লক্ষ লক্ষ সনাতন ধর্মাবলম্বী মানুষ।
সরস্বতী পুজো উপলক্ষ্যে বাংলাদেশের প্রেসিডেন্ট আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পৃথকভাবে দেশবাসীকে অভিনন্দন জানিয়েছেন। প্রেসিডেন্ট আবদুল হামিদ এক বিবৃতিতে বলেছেন, ‘‌সরস্বতী পুজো বাংলাদেশে অত্যন্ত জনপ্রিয় একটি ধর্মীয় উৎসব। ধর্ম, বর্ণ ও সম্প্রদায় নির্বিশেষে এই উৎসবে সকলের অংশগ্রহণ দেশের অসাম্প্রদায়িক চেতনায় ও ঐতিহ্যে ভিন্ন মাত্রা যোগ করেছে। জ্ঞানচর্চার ক্ষেত্রে বাণী অর্চনার এই আবহ অম্লান হোক। জ্ঞানালোকে উদ্ভাসিত হয়ে দেশের প্রতিটি মানুষ সাম্প্রদায়িকতা, অজ্ঞানতা, থেকে মুক্ত হয়ে একটি কল্যাণকর ও উন্নত সমাজ গঠনে এগিয়ে আসবে এটাই সকলের প্রত্যাশা।’‌ 
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘‌বাংলাদেশ সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির দেশ। এখানে রয়েছে সকল ধর্ম ও সম্প্রদায়ের মানুষের নিজ নিজ ধর্ম পালনের পূর্ণ স্বাধীনতা। আবহমানকাল ধরে এখানে জাতি–ধর্ম–বর্ণ নির্বিশেষে সকল ধর্মের মানুষ মিলেমিশে একত্রে বসবাস করে আসছেন। ধর্মীয় আচার অনুষ্ঠান নির্বিঘ্নে পালন করেছেন। আমি মনে করি, ধর্ম ব্যক্তিগত, উৎসব সবার। পারস্পরিক সম্প্রীতি সামনের দিনগুলোতে আরও সুদৃঢ় হবে। এটা আমার বিশ্বাস।’‌ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ঐতিহ্যবাহী জগন্নাথ হলে চিরাচরিত ঐতিহ্য মেনে বিদ্যার অধিষ্ঠাত্রী দেবী সরস্বতী পুজো হয়েছে।  জগন্নাথ হলের ঐতিহ্যবাহী পুজো ছাড়াও এবারের আকর্ষণ ছিল ক্যাম্পাসের ভেতরের জলাশয়ে তৈরি ৪৫ ফুট উচ্চতার সরস্বতী প্রতিমা।

জনপ্রিয়

Back To Top