আদিম যোদ্ধাদের ডিএনএ দিয়ে ক্লোনিং! অপরাজেয় সেনাবাহিনী বানাতে চাইছে রাশিয়া   

আজকাল ওয়েবডেস্ক: ক্লোনিং নিয়ে একটা সময় ব্যাপক হইচই হয়েছিল বৈজ্ঞানিক মহলে। বিশেষ করে ক্লোনিংয়ের সাহায্যে ডলি নামে একটা ভেড়ার জন্ম দেওয়ার পর চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়। মানুষের ক্লোন তৈরি করা এবং তা দিয়ে বিশাল সেনাবাহিনী তৈরির সম্ভাবনা তৈরি হয়ে যায়। যদিও তারপর এ নিয়ে উৎসাহে ধামাচাপ পড়ে যায়। কিন্তু তা ফের একবার জিইয়ে তুলল রাশিয়া। সোভিয়েত দেশের প্রতিরক্ষা মন্ত্রী তথা সেনাপ্রধান নাকি ৩০০০ বছর পুরনো যোদ্ধাদের দেহাবশেষ থেকে ক্লোনিং করে সেনাবাহিনী বানাতে চলেছেন! 
৩০০০ হাজার বছর আগে সিথিয়ান্স নামক যোদ্ধা এবং যাযাবরদের একটি জাত ইউরেশিয়া জুড়ে দৌরাত্ম্য করে বেড়াত। খ্রিস্টপূর্ব নবম শতাব্দী থেকে খ্রিস্টপূর্ব দ্বিতীয় শতাব্দী পর্যন্ত এরা ইরান অঞ্চলের অধিবাসী ছিল। মনে করা হয়, মোঙ্গলরা এই সিথিয়ান্সদেরই উত্তরসূরি। এরা এককালে ভারতেও পা রেখেছে। রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রী সের্গেই শোয়গু চান এই যোদ্ধাদের দেহাবশেষ থেকে ডিএনএ সংগ্রহ করে তা দিয়ে ক্লোন বানানোর। বংশগতির ধারক ও বাহক হিসেবে পরিচিত ডিএনএ-ই প্রত্যেক মানুষের মধ্যে তফাত গড়ে দেয়। আবার একজন মানুষ কী প্রকৃতির হবে তাও নির্ধারণ করে ডিএনএ, তাই সের্গেইয়ের ইচ্ছাপূরণ অসম্ভব নয়। 
বিশ্বের অন্যতম শক্তিশালী সেনাবাহিনীর অধিকারী রাশিয়ার প্রধানমন্ত্রী ভ্লাদিমির পুতিন নাকি সের্গেইকে নির্দেশ দিয়েছিলেন সেনাবাহিনী আরও শক্তিশালী করতে। সম্প্রতি রাশিয়ার জিওগ্রাফিক্যাল সোসাইটির এক অনুষ্ঠানে এসে সের্গেই বলেন, সাইবেরিয়ার তুন্দ্রা অঞ্চল থেকে পাওয়া সিথিয়ান যোদ্ধাদের ডিএনএ দিয়ে কিছু বানানো যাবে বলে আশা করছি। অবশ্যই তা ডলি নামের ভেড়ার থেকে ভাল কিছু হবে। ডিএনএ নিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা নাকি ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গিয়েছে।