Priyanka Chopra: রাষ্ট্রসংঘের সাধারণ অধিবেশনে ‌নিজের ভাষণে সবার মন জয় করলেন প্রিয়াঙ্কা 

‌‌আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ অভিনেত্রী হিসেবে বার বার নিজের দক্ষতার প্রমাণ দিয়েছেন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া জোনাস।

অভিনয়ের পাশাপাশি তিনি যে সুবক্তা, এবার তার প্রমাণ পাওয়া গেল রাষ্ট্রসংঘের চলতি অগিবেশনে। রাষ্ট্রসংঘের মঞ্চে প্রিয়াঙ্কা গোটা বিশ্বকে মনে করিয়ে দিলেন, বর্তমান এবং ভবিষ্যতের চাবিকাঠি আমাদের নিজেদের হাতেই রয়েছে এবং ন্যায্য, সুরক্ষিত ও স্বাস্থ্যকর দুনিয়া প্রতিটি নাগরিকেরই অধিকার।
 মঙ্গলবার রাষ্ট্রসংঘের সাধারণ সভায় ভাষণ দেন প্রিয়াঙ্কা। অভিনেতা–প্রযোজক ছাড়া প্রিয়াঙ্কার আরও একটি পরিচয় রয়েছে। তিনি রাষ্ট্রসংঘের ‘গুডউইল অ্যাম্বাসাডর’ বা শুভেচ্ছাদূত। 
সুস্থায়ী উন্নয়নের লক্ষ্যে রাষ্ট্রসংঘের সমস্ত সদস্য দেশের লক্ষ্যমাত্রাও নিজের ভাষণে মনে করিয়ে দেন তিনি। প্রিয়াঙ্কা বলেন, ‘‌বিশ্বের এক সঙ্কটময় সময়ে আমরা আজ মিলিত হয়েছি, যেখানে দুনিয়া জোড়া ভ্রাতৃত্ববোধের প্রয়োজনীয়তা অনেক বেশি জরুরি।’‌ সাম্প্রতিক সময়ে গোটা বিশ্বই যে স্বস্তিজনক অবস্থায় নেই, তা–ও মনে করিয়ে দিয়েছেন প্রিয়াঙ্কা। তাঁর কথায়, ‘‌কোভিডের মতো অতিমারির বিধ্বংসী প্রভাবের জেরে বিশ্বের নানা দেশই সঙ্কটের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। জলবায়ু পরিবর্তনের সঙ্কটের জেরে জীবন–জীবিকা প্রভাবিত হয়েছে। বিশ্বের ন্যায্য ভিত্তিকেই ধ্বংস করে দিয়েছে দারিদ্র এবং অসাম্য। যার জন্য আমরা দীর্ঘদিন ধরে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছি।’‌
রাষ্ট্রসংঘের পক্ষে প্রিয়াঙ্কার এই ভাষণ সম্প্রচার করা হয়েছে ইউটিউবে। সেখানে তাঁকে গাঢ় নীল পোশাকে দৃপ্ত ভঙ্গিতে ভাষণ দিতে দেখা গেছে। ভাষণে বিশ্বজুড়ে নানা সমস্যার কথা তুলে ধরেছেন তিনি।
 প্রসঙ্গত, ২০৩০ সালের মধ্যে বিশ্বজুড়ে সুস্থায়ী উন্নয়নের লক্ষ্যমাত্রা গ্রহণ করেছে রাষ্ট্রসংঘের সমস্ত সদস্য। তারই অঙ্গ হিসেবে দারিদ্র দূরীকরণ, পরিবেশরক্ষা এবং বিশ্ববাসীর জীবনের মান উন্নয়নসহ ১৭টি লক্ষ্য রয়েছে রাষ্ট্রসংঘের। এই দীর্ঘ পরিকল্পনার কথা মনে করিয়ে দিয়ে প্রিয়াঙ্কার বক্তব্য, ‘‌এই বিশ্ববাসীর কাছে আমরা ঋণী, এই পৃথিবীর কাছে আমরা ঋণী। যে বিশ্বে বসবাস করি তা ন্যায্য, নিরাপদ এবং সুস্থ হোক, সেটাই আমাদের প্রাপ্য।’‌ 

আরও পড়ুন:‌ টি২০ বিশ্বকাপের আগে কোথায় উন্নতি দরকার?‌ দেখালেন সানি

আকর্ষণীয় খবর