আজকাল ওয়েবডেস্ক: ‌ইচ্ছা তো হতেই পারে। সেই ইচ্ছাকেই পূরণ করতে গিয়ে বিপাকে পড়তে হল এক মহিলা যাত্রীকে। ভারতের জাতীয় পাখিকে নিয়ে বিমানে উঠতে চেয়েছিলেন যাত্রী। কিন্তু যাত্রীর সেই ইচ্ছাকে পাত্তাই দিল না বিমানবন্দর সংস্থা। ইউনাইটেড এয়ারলাইনস ময়ূর নিয়ে বিমানে উঠতে বাধা দেন এক যাত্রীকে।
ময়ূর নিয়ে বিমানে ওঠা কোনও বড় ব্যাপার নয়, এই চিন্তা করেই ওই যাত্রী সত্যি সত্যি ময়ূর নিয়ে বিমানে ওঠার পরিকল্পনা করে বিমানবন্দরে আসেন। তবে ময়ূর নিয়ে বিমানে ওঠার পেছনে কী কারণ রয়েছে তা স্পষ্ট নয়। তবে প্রশ্ন উঠছে, এক সাধারণ যাত্রী কি করে ময়ূর নিয়ে নিরাপত্তারক্ষীদের চোখ এড়িয়ে বিমানবন্দরের ভেতর ঢুকে পড়ল।

ইউনাইটেড বিমানসংস্থার পক্ষ থেকে জানা গিয়েছে, ওই যাত্রীকে বিমানে উঠতে বাধা দেওয়া হয়। কারণ ময়ূরটির ওজন বেশি হওয়ায় এবং আকারে বড় হওয়ায় সেটা নিয়ে বিমানের ভেতর যাওয়া যাবে না। বিমানসংস্থার পক্ষ থেকে বলা হয়, ‘‌আমরা যাত্রীকে জানাই ময়ূরটি কেন বিমানে নিয়ে যাওয়া যাবে না। বিমানবন্দরে আসার আগেই ওই যাত্রীকে কোনও পোষ্য নিয়ে যাওয়ার আগে সেই পোষ্য সংক্রান্ত তথ্য জমা দিতে হবে।’‌ যদিও ওই যাত্রীর কাছে নথিপত্র সবই মজুত ছিল। কিন্তু তা বিমানে ওঠার ৪৮ ঘণ্টা আগে বিমান সংস্থায় জমা দিতে হয়। 
গোটা ঘটনাটি ঘটেছে নিউইর্য়ক লির্বাটি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে।

সবচেয়ে মজার বিষয় হল ওই মহিলা যাত্রীর কাছে ময়ূরটির জন্য আলাদা করে বিমান টিকিটও কাটা ছিল। তাও বিমানে উঠতে পারল না ময়ূরটি। তবে এই ঘটনাটির জন্য বিমানসংস্থার পক্ষ থেকে ওই যাত্রীর কাছে ক্ষমা চাওয়া হয়েছে। বিমানবন্দর সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই মহিলার টিকিটের টাকাও ফেরত দিয়েছে বিমানসংস্থা। হোটেলে ফিরে যাওয়ার জন্য তাঁকে ক্যাবও ডেকে দেওয়া হয়। ইউনাইটেড বিমানসংস্থা কারোর ভাবাবেগে আঘাত করতে চায় না এবং তারা নিজেরাও যথেষ্ট পশুপ্রেমিক বলে জানান সংস্থার মুখপাত্র। 

 

 

বিমানবন্দরে ময়ূরটি ব্যাগের ওপর বসে রয়েছে।

জনপ্রিয়

Back To Top