আজকাল ওয়েবডেস্ক: ‌ফের পাকিস্তানের বিরুদ্ধে জঙ্গি গোষ্ঠীদের সাহায্য করার অভিযোগ উঠল। পাকিস্তানের সেনারা কাশ্মীরে লস্কর–ই–তৈবা এবং আফগানিস্তানের তালিবানকে মিলিটারি অস্ত্রের যোগান দেয়। সোমবার এই বিস্ফোরক তথ্য জানান মাজিদ কারার। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে যিনি আফগানিস্তানের রাষ্ট্রদূত। কাবুলের সেনা শিবিরে সোমবার জঙ্গি হামলার পরই এই দাবি করে আফগানিস্তান। এই নাশকতার ঘটনায় ৫ জন সেনা নিহত হয়েছেন এবং ১০ জন আহত হয়েছেন। 
মাজিদ কারার এই ঘটনার পর টুইট করে বলেন, ‘‌তালিবান হামলাকারীদের কাছে রাতের চশমা (‌সাধারণের জন্য নয়)‌, যা একমাত্র সেনাদের কাছেই থাকে তা পাওয়া গিয়েছে। এই চশমাগুলি পাকিস্তানের সেনাবাহিনীরাই বিশেষ করে ব্যবহার করে। একটি ব্রিটিশ সংস্থা সেনাদের জন্য এই চশমাগুলি তৈরি করে। এই রাত চশমাগুলি পাক সেনারা কাশ্মীরে লস্কর–ই–তৈবা এবং আফগানিস্তানে তালিবানদের কাছে পৌঁছে দেয়। আন্তর্জাতিক জঙ্গি গোষ্ঠী নামে পরিচিত লস্কর–ই–তৈবা।’‌ আফগানিস্তানের রাষ্ট্রদূত আরও দাবি করেন যে, পাক সেনারা তাঁদের জন্য ব্যবহৃত অস্ত্রেরও যোগান দেয় জঙ্গি গোষ্ঠীদের। 
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র আগেই ঘোষণা করে দিয়েছে, জঙ্গিদের নিরাপদ আশ্রয়স্থল হল পাকিস্তান। যদিও পাকিস্তান তা কোনওদিনই মানতে চায়নি। উপরন্তু লস্কর–ই–তৈবার প্রতিষ্ঠাতা হাফিজ সইদকে নিরাপরাধ বলে দাবি করেছে পাকিস্তান সরকার। ২০০৮ সালে মুম্বই হামলার মূল ষড়যন্ত্রকারী হাফিজকে রাষ্ট্রপুঞ্জ আর্তর্জাতিক জঙ্গি বলে অ্যাখা দিয়েছে। এ মাসের গোড়াতে, এনআইএ হাফিজ সইদ, হিজাবুল মুজাহিদিনের প্রধান সৈয়দ সালাহুদ্দিন এবং জম্মু–কাশ্মীরের আর ১০ জনের বিরুদ্ধে চার্জশীট গঠন করেছে।     
 

জনপ্রিয়

Back To Top