আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ৯২তম অস্কার পুরস্কারের মঞ্চে তৈরি হল ইতিহাস। বিদেশি ভাষার ছবি হয়েও সেরা ছবির বিভাগে অস্কার জিতল দক্ষিণ কোরিয়ার ছবি ‘‌প্যারাসাইট’‌। সেরা পরিচালক, সেরা অরিজিনাল স্ক্রিনপ্লে এবং সেরা আন্তর্জাতিক ছবির পুরস্কারও গিয়েছে তার ঝুলিতে। স্থানীয় সময় রবিবার সন্ধ্যায় ক্যালিফোর্নিয়ার লস এঞ্জেলেসের ডলবি থিয়েটারে অ্যাকাডেমি পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানের মঞ্চে সেরা ছবির পুরস্কার নিতে উঠে মাতিয়ে দিলেন ছবির প্রযোজক কোয়াক সিন–আই এবং প্রযোজক–পরিচালক বং জুন–হো। নিজের পুরো টিম নিয়ে পুরস্কার নিতে ওঠেন তাঁরা। এই প্রথম অস্কার মঞ্চে একসঙ্গে উঠলেন একঝাঁক কোরীয় শিল্পী এবং কলাকুশলী। তবে মঞ্চে নিজেদের বক্তব্য ইংরেজিতেই বলেন প্রযোজকরা। এর আগে গোল্ডেন গ্লোব, স্ক্রিন অ্যাক্টর্স গিল্ড পুরস্কার এবং রাইটার্স গিল্ড পুরস্কারও জিতেছিল ‘‌প্যারাসাইট’‌।

গত বছর কান চলচ্চিত্র উৎসবে ছবিটির প্রথম সম্প্রচার হয়েছিল। একটি দরিদ্র পরিবারের সদস্যরা কীভাবে নিজেদের উচ্চশিক্ষিত বলে প্রতিপন্ন করে একটি ধনী পরিবারে কাজে ঢোকে, সেই গল্প ঘিরেই তৈরি হয়েছে ‘‌প্যারাসাইট’‌। অভিনয় করেছেন সং কান–হো, লি সান–কিয়ুন সহ অন্যান্যরা।
এছাড়া প্রত্যাশা মতোই এবার সেরা অভিনেতা এবং সেরা অভিনেত্রীর পুরস্কার পেয়েছেন ‘‌জোকার’‌ ছবির জন্য ওয়াকিন ফিনিক্স এবং ‘‌জুডি’‌ ছবির জন্য রেনে জেলওয়েগার। পুরস্কার নিতে উঠে অন্যদের মতো শুধু পরিচালক, প্রযোজকের গুণকীর্তন বা পরিবারের সবাইকে ধন্যবাদ দিয়েই নামলেন না ‘‌জোকার’‌। তাঁর দাদার লেখা গান ‘‌‌রান টু রেসকিউ উইথ লভ্‌, পিস উইল ফলো’‌ গেয়ে সারা বিশ্বে দরিদ্র, নিপীড়তদের উপর চলা সামাজিক অন্যায়, বর্ণবিদ্বেষ, নারী নির্যাতনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানালেন ওয়াকিন।

বললেন, ‘‌কণ্ঠহীনদের কণ্ঠ হয়ে উঠতে হবে আমাদের। আমি অনেকদিন ধরেই ভাবছি বেশ কিছু সমস্যার মুখোমুখি হচ্ছি আমরা সবাই। আমার মনে হয় এটা আমাদের কখনও না কখনও বুঝতেই হবে। সেটা লিঙ্গ অসাম্যতা, বর্ণবিদ্বেষ, মানবিক অধিকার বা পশুদের উপর নির্যাতন যাই হোক, আমদের অন্যায়ের বিরুদ্ধে সরব হতে হবেই। আমরা সেই মানসকিতার বিরুদ্ধে লড়ছি যেটায় কোনও একটা দেশ, একটা প্রজাতি বা একটা লিঙ্গ সর্বক্ষণ আরেকদলকে নিপীড়ন এবং নিয়ন্ত্রণ করে যায়। আমাদের মধ্যে এই মানসিকতা চলে এসেছে যে আমরাই ব্রহ্মাণ্ডের কেন্দ্র। যার ফলে প্রকৃতি থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যাচ্ছি। কিন্তু মানুষই পারে আবিষ্কার করতে। আমরা যদি নিজেদের আদর্শকে ভালোবাসা, বুদ্ধি আর করুণার দ্বারা পরিচালিত করি তাহলে উপকারী এবং উন্নয়নশীল পরিবর্তন আসবে পরিবেশে। অতীতের ভুলের পুনর্ব্যবহার না করে পরস্পরকে সাহায্যের মাধ্যমে আমরা নিজেদের এগিয়ে নিয়ে যেতে পারব।

’‌     
‘‌রকেটম্যান’‌ ছবির ‘‌আয়াম গন্‌না লভ্‌ মি এগেইন’‌ গানের জন্য সেরা গানের অস্কার পেয়েছেন এলটন জন এবং বার্নি তাওপিন। সেরা সহ অভিনেতার পুরস্কার পেয়েছেন ব্যাড পিট, ‘‌ওয়ান্স আপন আ টাইম ইন হলিউড’‌ ছবির জন্য। ‘‌ম্যারেজ স্টোরি’‌ ছবির জন্য সেরা সহ অভিনেত্রী হয়েছেন লরা ডার্ন। সেরা অ্যানিমেটেড ছবি যথারীতি গিয়েছে পিক্সার পরিচালিত ‘‌টয় স্টোরি ৪’‌–এর পকেটে।  
ছবি:‌ এএনআই              

জনপ্রিয়

Back To Top