‌আজকাল ওয়েবডেস্ক: তাহলে কি ফের একবার অশান্তি উত্তেজনা ছড়াতে চলেছে কোরীয় উপদ্বীপে?‌ বুধবার দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে উচ্চ পর্যায়ের বৈঠক বাতিল করেছে উত্তর কোরিয়া। আর তারপরই এই নিয়ে শুরু হয়েছে নয়া জল্পনা। সম্প্রতি দক্ষিণ কোরিয়া এবং আমেরিকার মধ্যে অনুষ্ঠিত হচ্ছে ‘‌ম্যাক্স থান্ডার’‌ নামে একটি যৌথ বিমান মহড়া। আর এই মহড়ার প্রতিবাদ করে এদিনের বৈঠকটি বাতিল করে দেয় উত্তর কোরিয়া। মহড়ার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়ে এই সিদ্ধান্ত নেয় তাঁরা। পাশাপাশি বিদেশমন্ত্রকের তরফ থেকে  আমেরিকাকেও কড়া হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়েছে। বলা হয়েছে, আমেরিকা যদি উত্তর কোরিয়াকে পরমাণু অস্ত্র ত্যাগ করার জন্য কোনঠাসা করার চেষ্টা করে, তাহলে আগামী জুন মাসে ডোনাল্ড ট্রাম্প এবং কিম জং উনের মধ্যে ঐতিহাসিক বৈঠকও বাতিল হয়ে যেতে পারে। উত্তর কোরিয়ার নবনিযুক্ত উপ–বিদেশমন্ত্রী কিম গে গোয়ানকে উদ্ধৃত করে দেশের সরকারি সংবাদসংস্থা জানিয়েছে, ওয়াশিংটন যদি পিয়ং ইয়ং–এর সঙ্গে শান্তি স্থাপনের জন্য সঠিক রাস্তাটি বেছে নেয়, তাহলে তাদের তরফ থেকেও একইভাবে উদ্যোগ নেওয়া হবে। কিন্তু আমেরিকা যদি উত্তর কোরিয়াকে পরমাণু অস্ত্র বর্জন করার জন্য চাপ দেয় কিংবা কোনঠাসা করার চেষ্টা করে তাহলে সুসম্পর্ক আর স্থাপন হবে না। ওয়াশিংটনের সঙ্গে বৈঠকের রাস্তা থেকেও সরে আসবে পিয়ংইয়ং। এর পাশাপাশি তিনি ওয়াশিংটনকে সতর্ক করে বলেছেন, আমেরিকা যেন উত্তর কোরিয়ায় ‘‌লিবিয়া মডেল’‌ অনুসরণ করার চেষ্টা না করে।

জনপ্রিয়

Back To Top