টিকা না পাঠানোতেই কি আসছে না ইলিশ! চাপে ভারত-বাংলাদেশ 'সোনালি অধ্যায়' 

আজকাল ওয়েবডেস্ক: পদ্মার ইলিশ আসছে না। এবার জামাইষষ্ঠীতে জামাইদের পাতে পড়েছে মায়ানমারের ইলিশ। স্বাদে-গন্ধে সে পদ্মার রুপোলি ফসলের ধারেকাছে আসে না। এমনিতে বাংলাদেশের তরফে ভারতে ইলিশ রপ্তানি বন্ধ থাকলেও, গত বছর জামাইষষ্ঠীর প্রাক্কালে দু' হাজার টন পাঠিয়েছিলেন শেখ হাসিনা। কিন্তু এবার নাকি ভারতের টিকা না পাঠানো নিয়ে ক্ষুব্ধ ওপারের বাঙালিরা। সরকারিভাবে এমন কোনও বিবৃতি দেওয়া না হলেও, মনে করা হচ্ছে মোদি সরকার টিকা দেওয়া বন্ধ করাতে ইলিশ পাঠানো বন্ধ করেছে বাংলাদেশ। 
জানা গেছে, ওপারের প্রায় ১৬ লক্ষ মানুষ ভারতের পাঠানো টিকার প্রথম ডোজ নিয়েছিলেন। কিন্তু দেশে টিকার আকাল তাই মোদি সরকার জানিয়ে দিয়েছে, একটা ডোজও পাঠানো সম্ভব নয় এখন। এতেই নাকি ক্ষুব্ধ হাসিনার প্রশাসন। ফলে নরেন্দ্র মোদির বিরাট হইচই করে প্রচার করা ভারত-বাংলাদেশ 'সোনালি অধ্যায়' কিন্তু আর সোনালি নেই। 
মার্চের বাংলাদেশ সফরে গিয়েও টিকা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন মোদি। বলা হচ্ছে, ভারতের ওপর আস্থা রেখে চীনের টিকা পাঠানোর প্রস্তাবে না করে দেয় বাংলাদেশ। দ্বিতীয় ঢেউয়ের পর বাংলাদেশ, নেপাল, ভুটান সহ সব প্রতিবেশী দেশকে টিকা দেওয়া বন্ধ করেছে ভারত। বাধ্য হয়ে সেই চীনের দ্বারস্থ হতে হয়েছে ঢাকাকে। প্রথমে ১১ লক্ষ ডোজ উপহার হিসেবে দিলেও এখন সুযোগ বুঝে দাম বাড়াচ্ছে চীন। গোটা বিষয়টি নিয়ে খুবই বিরক্ত বাংলাদেশ। শুধু প্রশাসন নয়, বাংলাদেশি জনগণেরও দিন দিন ভারতের প্রতি বিদ্বেষ বাড়ছে। তার প্রভাব পড়েছে ইলিশ রপ্তানিতেও, বলছে ওপারের সূত্র।