আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ স্থানীয়দের সাহায্য পাচ্ছে বলেই জম্মু–কাশ্মীরে জঙ্গি আক্রমণ এত বেড়ে গিয়েছে। সরাসরি একথা জানালেন প্রতিরক্ষা মন্ত্রী নির্মলা সীতারামণ। তিনি বলে গেলেন, ‘‌সোমবার সকাল সাড়ে দশটায় সুঞ্জয়ানে সেনা–জঙ্গি লড়াই শেষ হয়েছে। তবে তল্লাশি অভিযান চলছে। ঘটনায় ৫ জওয়ান শহীদ হয়েছেন। ৬ জন জখম হয়েছেন। যার মধ্যে একজন স্থানীয় বাসিন্দাও রয়েছেন। ৩ জন জঙ্গিকে খতম করা হয়েছে। আরও একজন জঙ্গি ছিল। সম্ভবত সেই ছিল বাকিদের গাইড। তবে ক্যাম্পের মধ্যে সে ঢোকেনি।’‌ এরপরই প্রতিরক্ষা মন্ত্রীর সংযোজন, ‘‌জঙ্গিরা সকলেই জৈশ–ই–মহম্মদের। গোটা ঘটনার পিছনে রয়েছে মাসুদ আজহার। পাকিস্তান থেকেই সমর্থন পাচ্ছে সে। সমস্ত তথ্যপ্রমাণ আমরা সংগ্রহ করছি। পাক সরকারের হাতে তা তুলে দেওয়া হবে। যদিও বারবার বলা সত্ত্বেও জঙ্গি দমনে কোনও ব্যবস্থাই নেয়নি পাকিস্তান। আমরা অবশ্য তবুও ক্ষান্ত হব না। পাকিস্তানের উপর চাপ বজায় রাখা হবে। এই আক্রমণের উচিত শিক্ষা দেওয়া হবে পাকিস্তানকে। ইন্টেলিজেন্স ব্যুরোর রিপোর্ট রয়েছে আমাদের কাছে। পাকিস্তানই মদত দিচ্ছে জঙ্গিদের।’‌ 
সুঞ্জয়ান সেনা ক্যাম্পে হামলায় আক্রান্তদের সঙ্গে সোমবার দেখা করেন প্রতিরক্ষা মন্ত্রী। সোমবারই জম্মু–কাশ্মীরের মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি জানিয়েছেন, সীমান্তে সন্ত্রাস দমনে দুই দেশকেই একসঙ্গে কাজ করতে হবে। কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষা মন্ত্রী সোমবার দেখা করেন জম্মু–কাশ্মীরের মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে। সামগ্রিক পরিস্থিতি নিয়ে তাদের মধ্যে আলোচনা হয়। ‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top