আজকাল ওয়েবডেস্ক: ‌শুধুমাত্র ভাড়া বাড়ানোর জন্য ঘুমন্ত যাত্রীকে গন্তব্যস্থলে না নামিয়ে, তাঁকে ৬০ কিমি দূরে নামায় ভারতীয় বংশোদ্ভুত উবার চালক। এই ঘটনায় ওই চালককে দোষী সাব্যস্ত করেছে আদালত। ২৫ বছরের হরবির পারমারকে হোয়াইট প্লেইনস ফেডেরাল আদালত দোষী সাব্যস্ত করেছে। 
গত বছরের অক্টোবরে ওই উবার চালককে গ্রেপ্তার করে পুলিস। এ বছরের জুন মাসে তার সাজা ঘোষণা করা হবে। সরকারি আইনজীবী আদালতকে জানিয়েছেন, দোষী উবার চালক এই পদ্ধতি অবলম্বন করে বহু মহিলা যাত্রীর সঙ্গে এই প্রতারণা করেছে। ভাড়া বাড়ানোর জন্যই মহিলাদের অপহরণ করে তাঁদের ভয় দেখিয়ে গন্তব্য থেকে বেশ অনেকটা দূরে ছেড়ে দিত সে। জানা গিয়েছে, ২০১৮ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে এক মহিলা যাত্রী ম্যানহাটান থেকে হোয়াইট প্লেইনসে যাওয়ার জন্য উবার বুক করেন। উবার নিয়ে আসে হরবির পারমার। মহিলা যাত্রী উবারের পেছনের আসনে ঘুমিয়ে পড়ে। সেই সুযোগে হরবির মোবাইলে মহিলার গন্তব্যস্থান পরিবর্তন করে বস্টন করে দেয়। যা আসল গন্তব্য থেকে ৬০ কিমি দূরে। ওই মহিলা যাত্রীর যখন ঘুম ভাঙে তখন তিনি দেখেন তাঁর গন্তব্য থেকে অনেকটা দূরে তিনি চলে এসেছেন। উবার চালককে ফের তাঁর গন্তব্যে নিয়ে যাওয়ার কথা বলতে সে তাঁকে নিয়ে যায় না। উপরন্তু তাঁকে হাইওয়ের ধারে নামিয়ে চলে যায়। ওই মহিলা কোনওভাবে কাছাকাছি একটি জায়গায় গিয়ে স্থানীয়দের সাহায্য নিয়ে পুলিসের দ্বারস্থ হয়। 
পুলিস জানিয়েছে, ২০১৬ সালের ডিসেম্বর থেকে ২০১৮ সালের ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত হরবির বহু মহিলার ঘুমের সুযোগ নিয়ে মোবাইল অ্যাপে গন্তব্য পরিবর্তন করে দেয়। এভাবে সে মোটা টাকা উপার্জন করেছে। অথচ উবার কর্তৃপক্ষ এ বিষয়ে কিছুই জানত না। এই ঘটনা সামনে আসার পর আদালত প্রতারিত হওয়া যাত্রীদের টাকা ফেরত দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে উবারকে।    


 

জনপ্রিয়

Back To Top