আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ইংল্যান্ডের নতুন সংশোধিত অস্ত্র আইনে বিশেষ ছাড় পাচ্ছে ব্রিটিশ শিখ সমাজ। এসপ্তাহেই বিলে স্বাক্ষর করে দিয়েছেন রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ। খুব শীঘ্রই নতুন অস্ত্র বিল আইন হয়ে লাগু হবে ইংল্যান্ডে। ইংল্যান্ডের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের মুখপাত্র জানালেন, তাঁরা এব্যাপারে শিখ সম্প্রদায়ের সঙ্গে দীর্ঘ আলোচনা করেছেন। তারপরই সংশোধিত বিলে বলা হয়েছে, শিখ ধর্মাবলম্বীরা তাঁদের সঙ্গে কৃপান রাখতে পারেন। কারণ এটা তাঁদের ধর্মীয় আচার। এতে বাধা দেবে না ব্রিটিশ সরকার।
বেড়ে চলা ছুরি হামলা ঠেকানোর উদ্দেশ্যে নতুন অস্ত্র বিল এনেছিল ব্রিটিশ সরকার। নতুন বিল ব্রিটিশ পার্লামেন্টে পাস হয়ে গেলে কারও কাছে কোনও ধারালো অস্ত্র থাকলে সেটা বেআইনি হবে। এদিকে শিখ ধর্মাবলম্বীদের যে পাঁচটি ‘‌ক’‌ অক্ষর ধারণ করতে হয় তার মধ্যে একটি কৃপান। নতুন বিল সংশোধনের দাবিতে গত বছরের শেষেই ব্রিটিশ শিখদের অল পার্টি পার্লামেন্টারি গ্রুপ বা এপিপিজি–র প্রতিনিধি দল ইংল্যান্ডের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকে গিয়ে বলেছিল বিল থেকে যেন কৃপানকে পৃথক রাখা হয়। সংশোধিত বিল দেখে এপিপিজি–র চেয়ারপার্সন তথা ব্রিটিশ পার্লামেন্টের বিরোধী দল লেবার পার্টির এমপি প্রীত কৌর গিল বললেন, ‘‌আমি খুশি যে সরকার বিল সংশোধন করেছে। এর অর্থ, কৃপান বা তরোয়াল রাখা বা বিক্রি করার জন্য শিখ সম্প্রদায়কে অপরাধী হিসেবে গণ্য করা হবে না।’‌ নতুন আইনে কৃপান বিক্রি করা বা রাখার ক্ষেত্রে আইনি সুরক্ষাকবচ পেলেন শিখরা।       ‌‌
ছবি :‌ ডেকান হেরাল্ড

জনপ্রিয়

Back To Top