আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ আরও অবনতির পথে ভারত–নেপাল সম্পর্ক। এবার প্রতিবেশি এই রাষ্ট্রে বন্ধ হল ভারতীয় সমস্ত সংবাদচ্যানেলের সম্প্রচার। সেদেশের এমএসওরা এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ফলে বৃহস্পতিবার থেকে দূরদর্শন ছাড়া নেপালে দেখা যাচ্ছে না কোনও ভারতীয় সংবাদ চ্যানেল। নেপালের পরিষেবা প্রদানকারী সংস্থাগুলির অভিযোগ, ভারতীয় সংবাদ চ্যানেল গুলিতে তাঁদের প্রধানমন্ত্রী কেপি শর্মা ওলির বিরুদ্ধে অপপ্রচার করা হচ্ছে। চীনের সঙ্গে ওলির সম্পর্ক নিয়ে বিভ্রান্তিকর খবর পরিবেশন করছে ভারতীয় চ্যানেলগুলি। এদিকে, আজই নেপালের শাসকদল ‘নেপাল কমিউনিস্ট পার্টি’র মুখপাত্র নারায়ণ কাজি শ্রেষ্ঠ ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের বিরুদ্ধে তোপ দেগেছেন। তিনিও অভিযোগ জানিয়েছেন যে, উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে প্রধানমন্ত্রী ওলির বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালানো হচ্ছে ভারতীয় মিডিয়ায়। বিশ্লেষকদের মতে, কাঠমান্ডুর নির্দেশেই এই কাজ করা হয়েছে। সম্প্রতি, নেপালের রাষ্ট্রপতি বিদ্যাদেবী ভাণ্ডারির সঙ্গে গোপনে বৈঠক করেছেন চিনের রাষ্ট্রদূত হউ ইয়ানকি। শুধু তাই নয়, দেশের শাসকদল ‘নেপাল কমিউনিস্ট পার্টি’র অন্যতম শীর্ষনেতা মাধব কুমার নেপাল-সহ একাধিক শীর্ষস্তরের আমলার সঙ্গেও আলোচনা চালিয়েছেন চিনা রাষ্ট্রদূত। বিশ্লেষকদের মতে, প্রধানমন্ত্রী কেপি শর্মা ওলির মসনদ বাঁচাতেই আসরে নেমেছে চিন। নেপালের শাসকদলের মধ্যে কলহ মিটিয়ে ‘চীনপন্থী’ ওলিকেই আসনে রাখতে মরিয়া চিন। তাই মাধব নেপালের সঙ্গেও বৈঠক করেছেন চীনা রাষ্ট্রদূত। 

জনপ্রিয়

Back To Top