আজকাল ওয়েবডেস্ক: পাকিস্তানের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের শারীরিক অবস্থার অবনতি হচ্ছে দিন দিন। অথচ লাহোর জেল কর্তৃপক্ষ জেলের ভেতর তাঁর হৃদযন্ত্রের পরীক্ষা করাতে দিচ্ছে না। শুক্রবার জেলের বিরুদ্ধে এরকমই অভিযোগ তুললেন নওয়াজ শরিফের মেয়ে। 
শুক্রবার মারিয়াম নওয়াজ জানিয়েছেন, গত কয়েকদিন ধরে বাবার হাতে একটা অসহ্য যন্ত্রণা শুরু হয়েছে। এই ব্যাথা হৃদযন্ত্রের সমস্যা তৈরি হচ্ছে বলেই মনে করা হচ্ছে। আল–আজিজিয়া স্টিল মিলস দুর্নীতি মামলায় দোষী সাব্যস্ত নওয়াজ শরিফকে সাত বছরের কারাদণ্ডে দণ্ডিত করা হয়েছে। তিনি বর্তমানে লাহোরের কোট লাখপত জেলে আছেন। ওই জেলের মুখপাত্র জানিয়েছেন, জেলের চিকিৎসকরা শরিফকে পরীক্ষা করছেন নিয়মিত এবং তাঁরা জানিয়েছেন নওয়াজের স্বাস্থ্য ভাল আছে। অন্যদিকে টুইটারে নওয়াজের মেয়ে মারিয়াম বলেন, ‘‌বাবার হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ তাঁকে পরীক্ষা করার জন্য পুরো দিন চেষ্টা করে গিয়েছেন কিন্তু জেল কর্তৃপক্ষ কিছুতেই অনুমতি দেননি তাঁকে জেলের মধ্যে ঢোকার। বাবাকে বেসরকারি চিকিৎসকদের দিয়ে পরীক্ষা করাতে হবে যাঁরা ওঁনার স্বাস্থ্য সম্পর্কে আগে থেকেই অবগত।’‌ 
তিনবছর আগে লন্ডনে নওয়াজ শরিফের হৃৎযন্ত্রে অস্ত্রোপচার হয়। বৃহস্পতিবারই মারিয়াম তাঁর বাবাকে দেখতে জেলে যান। জেল থেকে বেড়িয়ে এসে তিনি জানান, বাবা সুস্থ নেই। তাঁর স্বাস্থ্যের বিশেষভাবে যত্ন নেওয়া দরকার। পিএমএল–এনের সভাপতি তথা নওয়াজের বড় ভাই শাহবাজ শরিফ জানিয়েছেন, তার ভাইয়ের কিছু হয়ে গেলে তার জন্য দায়ি থাকবেন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ও পাঞ্জাব সরকার। তিনি জেল কর্তৃপক্ষের কাছে দ্রুত নওয়াজ শরিফের হৃদযন্ত্র পরীক্ষা করার এবং সব ধরনের স্বাস্থ্য পরিষেবা দেওয়ার দাবি জানিয়েছেন।পাঞ্জাবের কারা মহাপরিদর্শক মির্জা শহিদ সালিম বেগ বলেন, 'নওয়াজ হচ্ছেন একজন উচ্চমর্যাদাসম্পন্ন কারাবন্দি। আমরা তার ব্যাপারে কোনো ঝুঁকি নিতে পারি না।'      

 


 

জনপ্রিয়

Back To Top