আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ নিবিষ্ট হয়ে কোনওরকম ব্যাঘাত ছাড়া পাবজি খেলতে চান তিনি। কিন্তু বাড়িতে কিছুতেই সেটা সম্ভব হচ্ছিল না। তার উপরে আবার অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী। মাঝে মধ্যেই কাজের জন্য ডাক পড়ত। নানা সমস্যা নিয়ে হাজির হতেন স্ত্রী। বিরক্ত হয়ে শেষে পাবজি খেলার জন্য বাড়িই ছেড়ে দিলেন মালেশিয়ার এই যুবক। গত একমাস ধরে বাড়ি ফেরেননি তিনি। যুবকের স্ত্রীর ফেসবুক পোস্টের পর বিষয়টি জানাজানি হয়। ফেসবুকে তাঁর স্ত্রী লিখেছেন, গত একমাস ধরে বাড়ি ফেরেননি আমার স্বামী। আমরা সকলেই ভীষণ কঠিন পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে যাচ্ছি। পাবজি খেলার আগে পর্যন্ত সবকিছু ঠিক ছিল।  চার বছর আগে পাবজি খেলা শুরু করেছিলেন আমার স্বামী। তারপর থেকে সংসারের অবস্থা ক্রমশ খারাপ হয়েছে। কোনও কাজই করতে চাইতেন না তিনি। এমনকী সাংসারিক দায়িত্ব পর্যন্ত পালন করতেন না। কাজেও যেতে চাইতেন না তিনি। এতটাই পাবজির প্রতি আসক্তি তৈরি হয়ে গিয়েছিল।’‌ 
মালেশিয় ভাষায় লেখা বধূর ফেসবুক পোস্ট দেখার পর স্থানীয় পুলিসের পক্ষ থেকে সাধারণ নিখোঁজ ডায়রি করা হয়েছে। পাবজি নিয়ে এই ধরনের উন্মাদনা এই প্রথম নয়। গোটা বিশ্বজুড়েই চলছে পাবজি আসক্তি। কয়েকদিন আগে মুম্বইয়ের এক কিশোর পাবজি খেলার জন্য স্মার্ট ফোন কেনার বায়না করেছিল। কিন্তু পরিবার কিনে দিতে রাজি হয়নি। তাই অভিমানে আত্মঘাতী হয় সে। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিও পাবজি ভিডিও গেমের প্রতি কিশোর এবং যুবাদের আসক্তি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। ‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top