আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ রায় শোনানোর সময় বিচারপতি জানিয়েছিলেন বিএনপি নেত্রীর বয়সের কথা মাথায় রেখেই তাঁর সাজা ৫ বছর করা হয়েছে। তাঁকে রাখা হয়েছে ঢাকার নিজাম উদ্দিন রোডের কেন্দ্রীয় সংশোধনাগারে। সেখানে বন্দীদের শিশুদের রাখার জন্য একটি ডে কেয়ার সেন্টার আছে। সেই তিনতলা বাড়ির একতলায় দুটি ঘরে খালেদা জিয়ার থাকার ব্যবস্থা করা হয়েছে। রায় ঘোষণার আধঘণ্টা পর সেখানে নিয়ে যাওয়া হয় বিএনপি নেত্রীকে। কারাগারে তাঁর সঙ্গে থাকবেন পরিচারিকা ফাতেমা বেগম। আগেই তাঁর থাকার অনুমতি নেওয়া হয়েছে। তার অনুমোদনও দিয়েছেন বিচারপতি। 
এদিকে কারাগার সংলগ্ন এলাকায় চূড়ান্ত সতর্কতা জারি করা হয়েছে। কোনও রকম অশান্তি যাতে সেখানে ছড়িয়ে না পড়ে সেকারণে অতিরিক্ত পুলিস মোতায়েন করা হয়েছে। প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তার কারণে কারাগারের চারপাশে নতুন করে সিসিটিভি ক্যামেরা বসানো হয়েছে। সেখানে যান নিয়ন্ত্রণ করা হচ্ছে। 
রায় ঘোষণার পর থেকেই শুনশান ঢাকার অধিকাংশ রাস্তা। যান চলাচল নেই বললেই চলে। ঢাকা সহ একাধিক জায়গায় বিএনপি কর্মীরা বিক্ষোভ দেখিয়েছেন। গ্রেপ্তার করা হয়েছে কয়েকশো বিএনপিকর্মীকে। পরিস্থিতি সংবেদনশীল হওয়ায় ঢাকা শহরজুড়ে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। ঢাকায় প্রবেশকারী সব যানবাহনে তল্লাশি চালানো হচ্ছে। 

জনপ্রিয়

Back To Top