‌আজকাল ওয়েবডেস্ক: ‌‘‌ভারতীয় দূতাবাস থেকে বলছি। আপনার ক্রেডিট কার্ডের নম্বরটা বলুন। কিছু সমস্যা হয়েছে। আপনাকে সাহায্য করার জন্যই ফোনটা করা হয়েছে’-‌‌ ক্রেডিট কার্ডের নম্বর বলার সঙ্গে সঙ্গে লাইনটি কেটে গেল। তারপর একটি ম্যাসেজ ঢুকল ফোনে। আপনার অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা কেটে নেওয়া হয়েছে। হতবাক গ্রাহক। ‘‌আবার আপনার পাসপোর্টে কিছু সমস্যা দেখা দিয়েছে। ভারতীয় দূতাবাস থেকে ফোন করছি। এই পরিমান টাকা জমা দিন না হলে পাসপোর্ট বাজেয়াপ্ত করা হবে। টাকা জমা দেওয়ার পর আর ওই নম্বরের অস্তিত্ব খুঁজে পাওয়া গেল না।’‌ অন্যদিকে, ‘‌আপনার ভিসার মেয়াদ শেষ হয়ে এসেছে। ভারতীয় দূতাবাস থেকে বলছি। ভিসার মেয়াদ বাড়াতে এই টাকাটা জমা দিতে হবে।’ ডেবিট কার্ডের নম্বর জানার পর লাইন কেটে গেল। কিছুক্ষণের মধ্যেই ঢুকল এসএমএস। টাকা কেটে নেওয়া হয়েছে। তারপর ওই টেলিফোন নম্বরের আর অস্তিত্ব খুঁজে পাওয়া গেল না। এভাবেই ভারতীয় দূতাবাসের নাম ভাঙিয়ে প্রতারণা শুরু হয়েছে আমেরিকায়। ওয়াশিংটনে অবস্থিত ভারতীয় দূতাবাসের পক্ষ থেকে এমনই অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে মার্কিন সরকারের কাছে। 
ভারতীয় দূতাবাস সূত্রে খবর, এভাবেই একের পর এক রহস্যজনক ফোন যাচ্ছে আমেরিকায় বসবাসকারি ভারতীয় নাগরিকদের কাছে। তারপরই তথ্য জেনে নিয়ে প্রতারণা করা হচ্ছে তাঁদের সঙ্গে। ইতিমধ্যেই এই অভিযোগের ভিত্তিতে অভ্যন্তরীন তদন্ত শুরু করেছে মার্কিন প্রশাসন। এক বছর আগেও এমন ঘটনায় বেশ কয়েকজন মার্কিন নাগরিককে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। এই ঘটনায় পূর্বের যোগসূত্র আছে কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

জনপ্রিয়

Back To Top