আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ জম্মু–কাশ্মীরের পরিস্থিতি নিয়ে ভারত–পাকিস্তানের মধ্যে মধ্যস্থতা করার ইচ্ছাপ্রকাশ করলেন রাষ্ট্রপুঞ্জের মহাসচিব অ্যান্টোনিও গুয়েত্রাস। আর প্রায় তৎক্ষণাৎ তাঁকে সম্মান দেখিয়েই পাল্টা জবাবে ভারত জানিয়ে দিল, এবিষয়ে নাক না গলিয়ে রাষ্ট্রপুঞ্জের উচিত পাকিস্তানকে বোঝানো যাতে অবৈধভাবে দখল করে রাখা ভারতীয় ভূখণ্ড থেকে সরে যায় পাকিস্তান।
প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, চারদিনব্যাপী পাকিস্তান সফরে এসে অ্যান্টোনিও গুয়েত্রাস রবিবার বলেন, জম্মু–কাশ্মীরের পরিস্থিতি এবং নিয়ন্ত্রণরেখার গন্ডগোল নিয়ে তিনি অত্যন্ত উদ্বিগ্ন। তাঁর মন্তব্য, ‘‌আমি সমস্যা মেটানোর প্রস্তাব দিয়েছি। আলোচনাই আঞ্চলিক লড়াই মেটানোর একমাত্র সমাধান। দুই পরমাণু শক্তিধর প্রতিবেশী রাষ্ট্রের উচিত নিজেদের মধ্যে সামরিক এবং বাক্‌যুদ্ধ বন্ধ করে পূর্ণমাত্রায় সংযম দেখানো।’‌ দক্ষিণ এশিয়ার নিরাপত্তা নিয়ে পাক বিদেশমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কুরেশির সঙ্গে আলোচনাও করেছেন রাষ্ট্রপুঞ্জের মহাসচিব।


গুয়েত্রাসের মন্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র রভীশ কুমার মার্জিত ভাষায় তাঁকে স্পষ্ট করে দিয়েছেন এই বলে যে, ‘‌ভারতের অবস্থান বদলায়নি। জম্মু–কাশ্মীর বরাবরই ভারতের নিজস্ব অংশ। যেটা নিয়ে আলোচনা করা উচিত সেটা হল পাকিস্তান যে ভারতের ভূখণ্ড অবৈধভাবে দখল করে রেখেছে তা ছেড়ে যাওয়া এবং জঙ্গিদের সরিয়ে নিয়ে যাওয়া।’‌ রভীশ কুমার আরও বলেছেন, ‘‌আমাদের আশা, রাষ্ট্রপুঞ্জের মহাসচিব বরং পাকিস্তানকে এটা বোঝাতে যোগ্য পদক্ষেপ করুন যে তারা যেন সীমান্ত সন্ত্রাস বন্ধ করে। কারণ তাতেই ভারতবাসীর এবং বিশেষত জম্মু–কাশ্মীরের বাসিন্দাদের মৌলিক অধিকার ত্রস্ত হচ্ছে।’‌ বাকি সব বিষয়ই দুদেশের দ্বিপাক্ষিক বিষয় এবং তাতে তৃতীয়পক্ষের মধ্যস্থতার দরকার নেই বলে সাফ জানিয়েছে ভারতীয় বিদেশ মন্ত্রক।
ছবি:‌ এএনআই, দ্য হিন্দু         

জনপ্রিয়

Back To Top