আজকাল ওয়েবডেস্ক: ফের ট্রোলের শিকার হলেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। ট্রোল হওয়ার ক্ষেত্রে তাঁর নিজের অবদান খুব একটা কম নয়। আসলে, দিনকয়েক আগে দেশে ধর্ষণ বন্ধ করার উপায় হিসেবে মেয়েদের পর্দা প্রথার সমর্থনে কথা বলেছিলেন ইমরান। টুইটারে বিকিনি পরিহিত এক বিদেশিনীর সঙ্গে তাঁর ভিডিও পোস্ট করে এক ব্যক্তি উলটে তাঁকেই ট্রোল করে দিলেন। 
ইমরান ক’দিন আগেই বলেন, শুধু আইন করে যেমন দুর্নীতি বন্ধ করা যায় না, সেরকম ধর্ষণ বন্ধ করতেও জনতাকেই এগিয়ে আসতে হবে। তাঁর কথায়, ‘আমাদের পর্দাপ্রথার সংস্কৃতিকে উৎসাহ দিতে হবে যাতে প্রলোভন বন্ধ হয়।’ এ প্রসঙ্গে ভারত এবং ইউরোপের দেশগুলোর দুর্নাম করেন তিনি। বলেন, দিল্লি হচ্ছে রেপ-ক্যাপিটাল এবং ইউরোপে অশ্লীলতা পরিবারতন্ত্রকে ধ্বংস করে দিচ্ছে। 


ফাহাদ দেশমুখ নামক এক ব্যক্তি ইমরানের একটি ভিডিও পোস্ট করেন। তাতে দেখা যাচ্ছে, বিকিনি পরিহিত এক শ্বেতাঙ্গ তরুণীর সঙ্গে সমুদ্র থেকে স্নান করে উঠে আসছেন পাক প্রধানমন্ত্রী। যদিও এই ভিডিও ইমরানের ক্রিকেটার জমানার। তবু সেটাকেই টুইটারে তুলে ওই ব্যক্তি লিখলেন, ‘এই লোকটা পর্দাপ্রথা নিয়ে জ্ঞান ঝাড়ছে।’ বলা বাহুল্য ভিডিওটি পোস্ট করা ইস্তক ব্যাপক ভাইরাল হয়েছে।  
 

জনপ্রিয়

Back To Top