সমীর দে, ঢাকা: বঙ্গোপসাগর ও মেঘনা–সহ কয়েকটি নদীতে গত এক সপ্তাহে প্রচুর ইলিশ ধরা পড়ছে। কনকনে ঠান্ডায় হঠাৎ জালে এত ইলিশ ওঠায় অবাক মৎস্যজীবীরাও। স্বাভাবিকভাবেই এর ফলে বরিশাল অঞ্চলের সবথেকে বড় তিনটি ইলিশের আড়তে বিকিকিনির ধুম পড়েছে। প্রচুর ইলিশের জোগান থাকায় দামও কমেছে। খুশি ক্রেতারাও। 
গত ৮–১০ দিনে ধরা পড়া বেশিরভাগ ইলিশের ওজন প্রায় এক কেজি। শীতের সময় মেঘনায় এত ইলিশ ধরা পড়া নজিরবিহীন। বরিশালের বিভাগীয় মৎস্য অধিদপ্তর সূত্রে খবর, ইলিশের প্রজনন মরশুমে মা ইলিশ ধরা বন্ধ থাকায় সাগর ও নদীতে মাছের উৎপাদন বেড়েছে। ফলে শীতেও প্রচুর ইলিশ ধরা পড়ছে।
বরিশাল পোর্ট রোডের আড়তদার অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি অজিতকুমার দাস মনু জানিয়েছেন, গত ৫–৭ বছরে শীতের সময় প্রতিদিন গড়ে ৬০ মনের মতো ইলিশ আমদানি হত। সেখানে গত এক সপ্তাহে ইলিশ আমদানি আশাতীত বেড়েছে। মঙ্গলবার ৩৫০ মন ইলিশ আমদানি হয়েছে। বুধবারও আমদানির পরিমাণ ২৫০ মনের বেশি। বৃহস্পতিবার আমদানি হয়েছে ২৮০ মন। শুক্রবার প্রায় ৩০০ মন।
শনিবার এক কেজি ওজনের ইলিশ মন প্রতি বিক্রি হয়েছে ৩২ হাজার টাকায়। সেই হিসেবে প্রতি কেজির দাম পড়েছে ৮০০ টাকা। রপ্তানিযোগ্য এলসি আকারের (৭০০–৯০০ গ্রাম) ইলিশের দাম মন প্রতি ২৬ হাজার টাকা। সেই হিসেবে প্রতি কেজি ইলিশের পাইকারি দাম পড়েছে ৬৫০ টাকা। ৫০০ গ্রাম বা ভেলকা আকারের (৪০০-৫০০ গ্রাম) ইলিশ বিক্রি হয়েছে প্রতি মন ২০ হাজার টাকায়। হিসেব মতো প্রতি কেজির দাম পড়েছে ৫০০ টাকা। গোটরা আকারের (২৫০-৩৫০ গ্রাম) ইলিশ প্রতি মন ১২ হাজার টাকা। অর্থাৎ প্রতি কেজির দাম ৩০০ টাকা।
মৎস্য বিভাগের বরিশাল জেলা কার্যালয়ের ইলিশ বিষয়ক কর্মকর্তা বিমলচন্দ্র দাসের মতে, বরিশাল পোর্ট রোড আড়তে আমদানি হওয়া বেশিরভাগ ইলিশই মেঘনা নদীর। উৎপাদন বেড়ে যাওয়ায় ইলিশের দাম পাইকারি ও খুচরা বাজারে কমতির দিকে।
ভোলার দৌলতখান উপজেলার মৎস্যজীবী মো. জসিম ও মনির মিয়াঁ জানিয়েছেন, গত কয়েক বছর শীতের সময় নদীতে খুব একটা ইলিশ পাওয়া যেত না। তবে গত ৮–১০ দিনে জালে প্রচুর ইলিশ উঠছে। সুতোর তৈরি বড় ফাঁকা জাল দিয়েই ইলিশ ধরা যাচ্ছে। ঘণ্টা দুয়েক পর পর জাল তুললেই ৫–১০ হাজার টাকার মাছ পাওয়া যাচ্ছে। তবে এক শ্রেণির অসাধু মৎস্যজীবী অবৈধ ‘‌কারেন্ট জাল’‌ ও বেহুন্দি জাল ব্যবহার করে ইলিশ শিকার করছেন। স্বাভাবিকভাবেই তাঁদের জালে আরও বেশি টাকার মাছ উঠছে। তাঁদের কারণে জাটকা ও মাছের পোনাও পাচ্ছেন না অন্য মৎস্যজীবীরা। ‌

জনপ্রিয়

Back To Top