আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ইওরোপের বিভিন্ন দেশে ধাপে ধাপে উঠতে শুরু করেছে লকডাউন। তবে একইসঙ্গে সুরক্ষা বিধি এবং সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার দিকেও কড়া নজর রাখা হচ্ছে।
যেমন জার্মানিতে বিধি মেনে সব ধরনের দোকানপাটই খুলে গিয়েছে। ছোটদের স্কুল এবং যেগুলিতে পরীক্ষা চলছে সেগুলি খুলেছে। বাকিগুলি গ্রীষ্মকালীন পঠনপাঠন শুরু হলে ক্রমানুসারে খুলবে। সীমান্ত খুলে গিয়েছে। খেলাধূলা শুরু হলেও বড় কোনও জমায়েত অগাস্ট পর্যন্ত নিষিদ্ধ।
ফ্রান্সে দূরে সফর করতে হলে অনুমতি লাগলেও স্বল্প দূরত্বের সফরে অনুমতি লাগছে না এখন। নার্সারি, প্রাথমিক স্কুল, দোকানপাট, সমুদ্র সৈকত খুলে দেওয়া হয়েছে। ১০জনের বেশি জমায়েত নিষিদ্ধ এবং রেস্তোরাঁ বা পানশালা এখনও বন্ধ।
লিথুয়ানিয়ে, লাটভিয়া এবং এস্টোনিয়া, এই তিন বল্টিক দেশগুলির মধ্যে বৃহস্পতিবার থেকে আন্তর্দেশীয় সফরের উপর থেকে নিষেধাজ্ঞা উঠে গিয়েছে। 
আয়ারল্যান্ডের সব স্কুল সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বন্ধ রাখা হলেও ক্রেশ এবং নার্সারি খুলে গিয়েছে। বিয়ে, ছোট জমায়েতে অনুমতি মিলবে জুলাই থেকে। দোকানপাট খুলবে জুন থেকে এবং স্বল্প দূরত্বের সফরে অনুমতি লাগবে না।
সুইডেনে প্রায় সবই খোলা তবে ৫০জনের বেশি জমায়েতে নিষেধাজ্ঞা আছে। 
পোল্যান্ডেও প্রায় সব কিছুই খুলে গিয়েছে। রাশিয়া প্রায় স্বাভাবিক ছন্দে ফিরতে শুরু করেছে।
গ্রিসে চার্চ, দোকানপাট, স্কুল খুললেও কাফে বা রেস্তোরাঁ জুন থেকে খুলবে। চলাফেরাতেও নিষেধাজ্ঞা উঠতে চলেছে।
সুইৎজারল্যান্ডে স্কুল, দোকানপাট, মিউজিয়াম, লাইব্রেরি সবই খুলে গিয়েছে। খোলা জায়গায় ১০০০জনের বেশি জমায়েতে নিষেধাজ্ঞা আছে। স্টেশনে স্যানিটাইজার দেওয়া হচ্ছে যাত্রীদের।
ইতালিতে দোকানপাট খুলেছে। স্কুল খুলবে সেপ্টেম্বরে। রেস্তোরাঁ এবং পানশালায় টেকঅ্যাওয়ে কাউন্টার খুললেও সেগুলি পুরো খুলবে জুন থেকে। ১৫জনের বেশি জমায়েতে নিষেধাজ্ঞা শোকমিছিলে।
স্পেনে কিছু স্কুল আংশিকভাবে খুললেও বেশিরভাগই বন্ধ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত। চার্চ, মসজিদ খুলেছে। পানশালা, রেস্তোরাঁ জুনের আগে পুরো খুলবে না।
ডেনমার্কে ১০জনের বেশি জমায়েতে নিষেধাজ্ঞা আছে। সীমান্ত বন্ধ। স্কুল, দোকানপাট খুলেছে।
অস্ট্রিয়াতে পর্যটন কেন্দ্রগুলি এমাসের শেষে খুলবে। মাঠে খেলা নিষিদ্ধ হলেও দোকানপাট, পার্ক খুলে দেওয়া হয়েছে। ক্রমানুসারে স্কুলও খুলছে।
নেদারল্যান্ডস্‌–এ গণ পরিবহন খুলেছে। লাইব্রেরি, দোকানপাট খুলেছে। পানশালা, রেস্তোরাঁ খুলবে জুন থেকে।
বেলজিয়ামে স্কুল, দোকানপাট, চিড়িয়াখানা, মিউজিয়াম, প্রায় সব কিছুই খুলে গিয়েছে। রেস্তোরাঁ খুলবে জুন থেকে।
 

জনপ্রিয়

Back To Top