আজকাল ওয়েবডেস্ক: নিয়োগ সংক্রান্ত বকেয়া থাকার কারণে বহু প্রবাসী ভারতীয়কে প্রায় ২০৩০ পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হতে পারে আমেরিকার গ্রিন কার্ডের জন্য। মার্কিন কংগ্রেসের কংগ্রেশনাল রিসার্চ সার্ভিস বা সিআরএস–এর সাম্প্রতিক রিপোর্টে এই তথ্য প্রকাশিত হয়েছে। বর্তমান মার্কিন আইন অনুযায়ী, প্রতিটি দেশ হিসেবে সাত শতাংশ গ্রিন কার্ড দেওয়া হয়। এর ফলে কমপক্ষে ১০ লক্ষ বিদেশি কর্মী এবং তাঁদের পরিবারের সদস্যরা গ্রিন কার্ডের জন্য মনোনীত হলেও বৈধতা পাননি। সিআরএস সূত্রে খবর, যদি মার্কিন কংগ্রেস দেশ প্রতি গ্রিন কার্ড দেওয়ার সংখ্যা কিছুটা কমায় তাহলে গ্রিন কার্ড প্রত্যাশীদের অপেক্ষার সময়সীমা কিছুটা কমতেও পারে।
নিয়োগ সংক্রান্ত এই বকেয়ার কারণ হিসেবে বলা হয়েছে, মার্কিন কোম্পানিগুলো প্রতিবছর যতজন বিদেশি কর্মীদের স্পনসর করে সেটার সংখ্যা বার্ষিক গ্রিন কার্ড অনুমোদনের সীমা ছাড়িয়ে যাচ্ছে। এর সঙ্গেই যুক্ত হয়েছে দেশ প্রতি সাত শতাংশ কর্মীকে গ্রিন কার্ড দেওয়ার ট্রাম্প সরকারের নীতি। যার ফলে কিছু দেশের জন্য কোম্পানি ভিত্তিক গ্রিন কার্ডের একাধিপত্য কমে গিয়েছে। প্রধাননত, ভারত এবং চীন থেকেই প্রচুর সংখ্যক কর্মী আমেরিকা যান। তাই এই দুই নীতির ফলে সব চেয়ে ভোগান্তির মুখে পড়েছেন এই দুই দেশের নাগরিকরাই।  

জনপ্রিয়

Back To Top