আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ তাঁর বিরুদ্ধে বারবার উঠছে নিষ্ঠুরতা এবং কুরুচিকর কথা বলার অভিযোগ। তবে এবার বোধহয় নিজের কুকীর্তির সব নজির ছাপিয়ে গেলেন ফিলিপিন্সের প্রেসিডেন্ট রদরিগো দুতার্তে। যিনি খামখেয়ালিপনা ও বারবার বিতর্কে জড়িয়ে পড়ার জন্য আন্তর্জাতিক মহলে ‘‌প্রাচ্যের ডোনাল্ড ট্রাম্প’‌ নামেও পরিচিত। এবার ফের বড়সড় বিতর্কে জড়ালেন তিনি। কোনও মহিলা রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ ঘোষণা করলে তাঁর যোনিতে গুলি করার নির্দেশ দিয়েছেন দুতার্তে। যা নিয়ে শোরগোল পড়ে গিয়েছে গোটা বিশ্বে। ফিলিপিন্সে রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে দীর্ঘদিন ধরেই বিদ্রোহ চলছে। সরকারি দমনীতির বিরুদ্ধে মুখ খুলে শাস্তি  ও অত্যাচারও ভোগ করছেন অনেকে। যা নিয়ে বারবার সরব হয়েছে বিভিন্ন মানবাধিকার সংস্থা। দুতার্তের ভাবমূতি তাদের কাছেও খুব একটা ভাল নয়। ফিলিপিন্স সেনার এক জমায়েতে ভাষণ দিতে গিয়ে দুতার্তে বলেন, ‘‌সেনাকে বলা রইল, বিরোধিতা দেখলে যে আমরা শুধু গুলি চালাবো, তা–ই নয়। আমরা মহিলাদের যোনিতেও গুলি চালাব। আর যার যোনি নেই, সে কোন কাজে আসবে?‌’‌ 
এই মন্তব্যের পর তুমুল সমালোচনার মুখে পড়েছেন দুতার্তে। এর আগেও বারবার কদর্য মন্তব্যে নাম জড়িয়েছে তাঁর। বিশেষত মহিলাদের ব্যাপারে মন্তব্য করার ক্ষেত্রে অশ্লীল বাক্য ব্যবহার করেছেন তিনি। 
 

জনপ্রিয়

Back To Top