আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ বিয়ের থিম জঙ্গল–সাফারি। সেজন্য অবলা পশুদের ও নিজেদের খেয়ালখুশি মতো সাজিয়ে দিলেন বিয়ের অনুষ্ঠানের উদ্যোক্তারা। ঘটনাটি ঘটেছে স্পেনের বন্দর শহর ক্যাডিজ–এর এল পামার অঞ্চলের পানশালা চিরিংগুইটোয়।
ওই পানশালায় গত সপ্তাহে একটি বিয়ের অনুষ্ঠান হয়েছিল। বিয়েবাড়ির থিম ছিল আফ্রিকার সাভানা জঙ্গল। অনুষ্ঠানকে সেই আমেজ দিতে পুরো পানশালা সাভানা তৃণভূমির মতো বড়বড় ঘাস, ঝোপঝাড়, গাছপালা দিয়ে সাজিয়েছিলেন অনুষ্ঠানের উদ্যোক্তা তথা পানশালার মালিকপক্ষ। থিম–বিয়ের পার্টিকে আরও প্রাণবন্ত করে তুলতে দুটি গাধাকে জেব্রার রং–এ রাঙিয়ে দেন বিয়েবাড়ির উদ্যোক্তারা। জেব্রারূপী গাধা দুটি পানশালা চত্বরে ছেড়ে রাখা হয়েছিল।
পশু দুটির ছবি এবং ভিডিও সোশ্যাল সাইটে আপলোড করেন অ্যাঞ্জেল টমাস হেরেরা পেলেজ নামে এক ব্যক্তি। পোস্টে তিনি অভিযোগ করেন দিনভর রোদের ভিতরই দাঁড়িয়ে ছিল গাধা দুটি। তাদের জন্য কোনও ছাউনিরও ব্যবস্থা করা হয়নি। পেলেজের পোস্ট ভাইরাল হতেই নিরীহ অবলা পশুদের এভাবে ব্যক্তিগত মনোরঞ্জনের জন্য ব্যবহার করায় বিশ্বজুড়ে উদ্যোক্তাদের তুলোধনা করেন পশুপ্রেমীরা। ঘটনাটি রীতিমতো ‘‌লজ্জাকর’‌ বলে উল্লেখ করে নেটিজেনরাও তীব্র ভর্ৎসনা করেন পানশালার মালিকপক্ষকে। 
বিষয়টি প্রথমে মাদার আর্থ প্ল্যাটফর্ম নামে পরিবেশপ্রেমী সংগঠনের নজরে আনেন এক স্থানীয় বাসিন্দা। সেই সংগঠন তারপর ঘটনা সম্পর্কে স্থানীয় থানা এবং প্রশাসনকে জানায়। স্পেনের অ্যাগ্রিকালচারাল অ্যান্ড কমার্শিয়াল অফিস বা ওসিএ এবং নেচার প্রোটেকশন সার্ভিস বা এনপিএস ঘটনার তদন্তে নামে। পশু চিকিৎসক দিয়ে গাধা দুটির শারীরিক পরীক্ষা করানো হয়। পরে স্থানীয় কৃষি, মৎস্য এবং গবাদি পশু দপ্তরের রাজনীতিক ড্যানিয়েল স্যাঞ্চেজ রোমান সাংবাদিকদের বলেন, পশু চিকিৎসকের পাঠানো রিপোর্টে জানা গিয়েছে প্রাণী দুটির শরীরে ব্যবহৃত রং শিশুদের শরীরে ব্যবহারযোগ্য। ফলে পশুদের কোনও শারীরিক ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা নেই। প্রশাসনের এই মন্তব্যে উত্তাপ কিছুটা কমলেও অবলা পশুদের নিছক মনোরঞ্জনের জন্য ব্যবহারের এই ঘটনায় পশুপ্রেমীদের ক্ষোভের সম্পূ্র্ণ প্রশমন হয়নি।
ছবি:‌ গাল্ফ নিউজ     ‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top