উহানের গবেষণাগার থেকে ছড়ায়নি করোনা ভাইরাস! অবশেষে মুখ খুললেন চিনা গবেষক

আজকাল ওয়েবডেস্ক: উহানের যে গবেষণাগার থেকে করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার খবর রটে গিয়েছে গোটা বিশ্বে, সেই গবেষণাগারের বিজ্ঞানী শি জেঙ্গলি অবশেষে অস্বীকার করলেন সমস্ত তথ্য। সম্প্রতি নিউ ইয়র্ক টাইমস-কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে শি জানান, এই তথ্য সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন। যা ঘটেনি, তার সপক্ষে যুক্তি দেওয়ার কোনও মানে নেই। এমনকি এই গুজবের মাধ্যমে বিজ্ঞানীদের বদনাম করা হচ্ছে বলেই প্রতিবাদ করেছেন তিনি। ২০১৯ করোনা ছড়িয়ে পড়েছিল উহান থেকেই। তারপরেই বিশ্বে ছড়িয়ে পড়ে এই গবেষণার নাম। করোনা ছড়িয়ে পড়ার আগে বাদুড়ের শরীরের ভাইরাস নিয়ে পরীক্ষা করছিলেন কয়েকজন গবেষক। যাঁদের মধ্যে কয়েকজন অসুস্থ হয়ে পড়েন। এদের মধ্যে শি-ও ছিলেন। কিন্তু সম্প্রতি সাক্ষাৎকারে শি জানান, করোনা ছড়িয়ে পড়ার আগে থেকেই গবেষকরা অসুস্থ ছিলেন। তাঁদের অসুস্থতার সঙ্গে ভাইরাসের সম্পর্ক নেই! প্যানডেমিকের পর আমেরিকার তৎকালীন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প জানান, উহানের গবেষণাগার থেকেই ছড়িয়ে পড়েছিল করোনা। কৃত্রিম পদ্ধতিতে তৈরি করে মানুষের শরীরে এই ভাইরাস ছড়িয়ে দেওয়া হয়। পরবর্তীতে প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন গোয়েন্দাদের নিয়ে নয়া তদন্তকারী সংগঠন তৈরি করে করোনার উৎসস্থল খোঁজার নির্দেশ দেন। এমনকি ল্যাব-তত্ত্ব সঠিক কি না সেই নিয়েও পরীক্ষার আদেশ দেন। অন্যদিকে চিনারা মনে করেন, দেশে সংক্রমণ রুখতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিয়েছিলেন শি জেঙ্গলি। এমনকি বহু বিজ্ঞানীরা এখনও বলছেন, ল্যাব থেকে ছড়িয়ে পড়েছিল কি না, এখনও প্রমাণিত হয়নি। আবার কয়েকজনের মতে, সেই সময় বাদুড়ের শরীর নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ গবেষণা করছিলেন শি। কিন্তু সঠিক নিরাপত্তা নেননি। গুজব রটলেও চিনা সরকার সেই ল্যাবে কাউকেই ঢুকতে দেয়নি এখনও পর্যন্ত। শি-এর গবেষণার বিষয়বস্তু নিয়েও লুকিয়ে যাওয়া হয়েছে বহু তথ্য। শি নিজে অস্বীকার করলেও, উহানের সেই ল্যাব নিয়ে এখনও সন্দেহ কাটছে না বিজ্ঞানীদের।