সংবাদ সংস্থা, লন্ডন, ৩০ মার্চ- করোনা–‌আতঙ্ক দুনিয়া জুড়ে। এবার স্বেচ্ছা আইসোলেশনে গেলেন ইজরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু। সংসদে এক সহকারী করোনায় আক্রান্ত। খবর পেয়েই স্বেচ্ছা আইসোলেশনের সিদ্ধান্ত নেন। আতঙ্কে ১৫ মার্চ একবার পরীক্ষা করিয়েছিলেন। রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছিল। তবু ঝুঁকি না নিয়ে মঙ্গলবার ফের করোনা পরীক্ষা করাবেন ঠিক করেছেন। ইজরায়েল সংবাদমাধ্যমের খবর, গত সপ্তাহে পার্লামেন্টের অধিবেশনে করোনা পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করেন নেতানিয়াহু। তখন অধিবেশনে ছিলেন করোনায় আক্রান্ত ওই সাংসদ। যদিও প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে তাঁর সাক্ষাৎ হয়নি।
এদিকে সাতদিন পর স্বেচ্ছা আইসোলেশন থেকে বাইরে এলেন ব্রিটেনের প্রিন্স চার্লস। এখন ভাল আছেন। সোমবার জানালেন তাঁর মুখপাত্র। গত সপ্তাহে করোনায় আক্রান্ত হন ৭১ বছরের যুবরাজ। তারপরই স্কটল্যান্ডে স্বেচ্ছা আইসোলেশনের সিদ্ধান্ত নেন। সেখান থেকেই যাবতীয় কাজকর্ম করছিলেন। চিকিৎসকদের পরামর্শ মেনে স্বেচ্ছা আইসোলেশন থেকে বেরলেন। তবে স্ত্রী ক্যামিলার রিপোর্ট নেগেটিভ হলেও তিনি স্বেচ্ছা আইসোলেশনেই রয়েছেন।
করোনা জাঁকিয়ে বসেছে ইওরোপের অধিকাংশ দেশে। ব্রিটেন, ইতালি, স্পেন, ফ্রান্সের হাসপাতালগুলিতে রোগীদের উপচে–‌পড়া ভিড়। অধিকাংশেরই প্রবল শ্বাসকষ্ট। পরিস্থিতি সামলাতে হিমশিম খাচ্ছেন চিকিৎসকেরা। রোগীদের শ্বাসকষ্ট কমাতে খেলাধুলোয় ব্যবহৃত স্নরকেলিং নামে বিশেষ ধরনের মুখোশ ব্যবহার করে সুফল পেয়েছে ইতালি। তা জেনে এই মাস্ক ব্যবহার করছে ইওরোপের অন্য দেশগুলিও। স্পেনে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। ২৪ ঘণ্টায় ৮১২ জন আক্রান্ত হয়েছেন। ইতালির পর স্পেনেই করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ সবচেয়ে বেশি। 

জনপ্রিয়

Back To Top