আজকাল ওয়েবডেস্ক: চাঁদের সম্পর্কে আরও জানতে উদ্যোগী হল চীন। মঙ্গলবার সেই লক্ষ্যে চাঁদে রকেট পাঠাল চীন। এই রকেট চাঁদ থেকে বিভিন্ন নমুনা সংগ্রহ করে আনবে। যার সাহায্যে চাঁদ সম্পর্কে আরও জানা সম্ভব হবে। এমনটাই মনে করছে জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা। চ্যাং–ই৫ নামে এই চন্দ্রাভিযানের নাম রেখেছে চীন। একটি রোবটের সাহায্যে চাঁদের মাটি থেকে পাথরের নমুনা তুলে আনবে চ্যাং–ই৫। এই নিয়ে ষষ্ঠ চন্দ্রাভিযান শুরু করল চীন। এই রকেটে আছে একটি অরবিটার, এবং একটি ডিসেন্ডার–অ্যাসেন্ডার। ডিসেন্ডার চাঁদের মাটিতে নামার পর একটি রোবট চাঁদের মাটি খুঁড়ে নমুনা সংগ্রহ করে সেটা অ্যাসেন্ডারে পাঠাবে। তারপর সেখআন থেকে সেটা যাবে অরবিটারে। অরবিটার আবার সেটা পৃথিবীতে পাঠাবে। মাত্র একদিনের মধ্যে রোবটকে নমুনা সংগ্রহ করতে হবে। নমুনাগুলি একটি ক্যাপসুলে করে পৃথিবীতে এসে ডিসেম্বরের মাঝামাঝি মোঙ্গোলিয়ার মধ্যবর্তীস্থলে পড়বে। চ্যাং–ই৫–এর লক্ষ্য, চাঁদের আগ্নেয় অঞ্চল মোনস্‌ রুমকের থেকে পাছর এবং ধুলো মিলিয়ে চার পাউন্ড নমুনা সংগ্রহ করা। চাঁদের এই অঞ্চলে দীর্ঘদিন কোনও রকেট অভিযান চালায়নি। ফলে এখানকার নমুনা থেকে চাঁদের মাটিতে অগ্ন্যুৎপাতের ইতিহাস জানা যাবে, অনুমান বিজ্ঞানীদের। এর আগে যে নমুনা এই অঞ্চল থেকে মিলেছিল, তাতে বিজ্ঞানীরা ইঙ্গিত পেয়েছিলেন, চাঁদের সক্রিয় আগ্নেয়গিরি আছে এবং এই আগ্নেয়গিরি ১.‌২ বিলিয়ন বছর আগে সব থেকে সক্রিয় আগ্নেয়গিরিগুলির মধ্যে অন্যতম। জনবসতি গড়ার পরিকল্পনা আছে চীনের।        

জনপ্রিয়

Back To Top