আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ অত্যাচারের অভিযোগ তুলে বাড়ি থেকে পালিয়ে যাওয়া সৌদি আরবের অষ্টাদশী অবশেষে আশ্রয় পেলেন কানাডায়। অস্ট্রেলিয়া, কানাডা সহ বহু দেশ রাহাফকে আশ্রয় দিতে রাজি হলেও কানাডাকেই নতুন আশ্রয়ের ঠিকানা হিসেবে বেছে নেন তিনি।
বাড়ি থেকে পালিয়ে গত সোমবার থাইল্যান্ডের সুবর্ণভূমি বিমানবন্দরে পৌঁছন  থেকে সৌদি কোটিপতির মেয়ে রাহাফ মহম্মদ আলকুনান। বিমানবন্দরের হোটেল থেকে তাঁকে উদ্ধারের পর অভিবাসন দপ্তরে নিয়ে যায় পুলিস। রাহাফ দপ্তরের কর্মীদের আবেদন করেন তাঁকে সৌদি দূতাবাসে না পাঠাতে। কারণ, তাহলে তাঁকে ফের বাড়িতে পাঠিয়ে দেওয়া হবে এবং সেখানে গেলেই তাঁর উপর ফের পাশবিক অত্যাচার চালানো হবে। রাহাফের আবেদনে সাড়া দিয়ে রাষ্ট্রপুঞ্জে শরণার্থীদের হাই কমিশনার তাঁর জন্য নিরাপদ আশ্রয়ের খোঁজ শুরু করেন। এরপরই রাহাফকে শরণ দিতে রাজি হয় বিভিন্ন দেশ। রাহাফ পুলিসকে জানিয়েছেন, তাঁর পরিবার যখন কুয়েতে ছুটি কাটাতে গিয়েছিল, সেই সময় সুযোগ বুঝে তিনি থাইল্যান্ডের বিমানে চেপে বসেন। রাহাফের অভিযোগ, চুল কাটার জন্য তাঁর উপর পরিবারের লোকজন অকথ্য অত্যাচার করছিল। তবে বিয়ে থেকে বাঁচতে তিনি বাড়ি পালাননি বলেও দাবি করেছেন রাহাফ মহম্মদ আলকুনান।     ‌

জনপ্রিয়

Back To Top