Covid Update: মার্চের মধ্যে ইউরোপে মৃত্যু হতে পারে ৭ লক্ষ মানুষের! তবে স্বস্তি দিচ্ছে দেশের কোভিড গ্রাফ

আজকাল ওয়েবডেস্ক: উদ্বেগ কমাচ্ছে দেশের কোভিড গ্রাফ। উৎসবের মরসুম শেষে দেশে দৈনিক সংক্রমণ কমে ১০ হাজারের নীচেই। সেই সঙ্গে কমেছে সক্রিয় রোগীর সংখ্যাও। মঙ্গলবারের তুলনায় দেশের করোনা সংক্রমণ বুধবার খানিকটা বাড়লেও, সুস্থতার হার উদ্বেগ কমাচ্ছে চিকিৎসকদের।

বুধবার স্বাস্থ্য মন্ত্রকের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, ৫৩৭ দিনে দেশে সর্বনিম্ন সক্রিয় রোগীর সংখ্যা। বর্তমানে দেশে অ্যাক্টিভ কেস কমে ১ লক্ষ ১১ হাজার ৪৮১ জন। মঙ্গলবারের তুলনায় সংক্রমণ বেড়ে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে আক্রান্ত হয়েছেন ৯ হাজার ২৮৩ জন। একদিনে দেশে কোভিডে প্রাণ হারিয়েছেন ৪৩৭ জন। পরিসংখ্যান অনুসারে, গত বছরের মার্চের পর রেকর্ড হারে সুস্থ হয়েছেন কোভিড আক্রান্তরা। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় সুস্থ হয়েছেন ১০ হাজার ৯৪৯ জন। 

দেশের কোভিড গ্রাফ স্বস্তি দিলেও ইউরোপ নিয়ে এখনও দুশ্চিন্তায় বিশেষজ্ঞরা। ইউরোপের করোনা পরিস্থিতি ‘অত্যন্ত ভয়াবহ’ বলেই উল্লেখ করল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার আঞ্চলিক কর্ণধার এক আন্তর্জাতিক সংবাদসংস্থাকে উদ্বেগ প্রকাশ করে জানিয়েছেন, ইউরোপের ৫৩টি দেশের মধ্যে ২৫টি দেশেই করোনা পরিস্থিতি ‘অতিরিক্ত উদ্বেগজনক’। বর্তমানে দৈনিক মৃতের সংখ্যা ৪ হাজার ২০০-তে দাঁড়িয়েছে। যা গত সেপ্টেম্বর মাসের দৈনিক মৃত্যুর তুলনায় প্রায় দ্বিগুণ। এখনও পর্যন্ত ইউরোপে করোনায় মৃত্যু হয়েছে ১৫ লক্ষ ১৩ হাজারেরও বেশি মানুষের। পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হলে, মার্চ থেকে এপ্রিলের মধ্যে কোভিডের কারণেই ইউরোপে মৃত্যু ছাড়াতে পারে ৭ লক্ষের বেশি! কড়াকড়ি করে কোভিডবিধি না মানলে, পরিস্থিতি আরও ভয়াবহ হতে পারে বলেই আশঙ্কা করছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। 

আরও পড়ুন: প্রস্ট্রেট ক্যানসারের ঝুঁকি কমানোর উপায় কী? পরামর্শ দিচ্ছেন ডাক্তাররা 

আকর্ষনীয় খবর