আজকাল ওয়েবডেস্ক: যবে থেকে‌ ব্রিটেনে করোনাভাইরাসের প্রকোপ বেড়েছে, তখন থেকেই রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ বাকিংহ্যাম প্রাসাদ ছেড়ে স্বেচ্ছা আইসোলেশনে আছেন। সম্প্রতি যুবরাজ চার্লস, ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন এবং স্বাস্থ্যমন্ত্রী ম্যাট হ্যানককেরও কোভিড–১৯ পজিটিভ ধরা পড়েছে। তাই আপাতত ব্রিটেনের ক্ষমতায়নের মূল কয়েকটি স্তম্ভ গরহাজির। এমতাবস্থায় সাধারণত, যে কোনও গণতান্ত্রিক দেশে সেই দায়িত্ব বর্তায় দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বা অর্থমন্ত্রীর উপর। আর এখন ব্রিটেনের চ্যান্সেলর অফ এক্সচেকার বা অর্থমন্ত্রী হলেন নারায়ণ মূর্তির জামাই, ভারতীয় বংশোদ্ভূত ঋষি সুনাক। আর স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হলেন আরেক ভারতীয় বংশোদ্ভূত প্রীতি প্যাটেল। তাই সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি মিম্‌ প্রচন্ড ভাইরাল হয়েছে। মিম্‌–এ লেখা হয়েছে ‘‌ভারত ব্রিটেন শাসন করছে। ২০০ বছর পর দারুণ প্রত্যাবর্তন।’‌ কারণ, বর্তমান পরিস্থিতিতে ব্রিটেনের দায়িত্ব অর্থমন্ত্রী ঋষি সুনাক বা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী প্রীতি প্যাটেলের হাতে গেলে সেটাই প্রমাণিত হয়। 
যদিও ব্রিটেন সরকারের তরফে কিছু ঘোষণা করা হয়নি। এবং ঋষি সুনাক নিজেও বাড়ি থেকেই কাজ করছেন। এবং কোভিড–১৯ পজিটিভ ধরা পড়ার কিছু দিন আগেও ইংল্যান্ডগামী সব বিমান বন্ধ করা নিয়ে প্রীতির প্যাটেলের সঙ্গে বাকবিতন্ডা হয়েছিল বরিস জনসনের। কারণ প্রীতি চাইলেও বরিস চাননি উড়ান বন্ধ হোক। এমনকি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের সীমান্ত বন্ধ করার ঘটনা প্রকাশিত হয়ে যাওয়ায় প্রীতির উপর ক্ষুব্ধ হয়েছিলেন বরিস।
কিন্তু এই পরিস্থিতিতে যেহেতু যে কোনও গণতন্ত্রেই অর্থমন্ত্রী এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীই মুখ্য ভূমিকা নেন , তাই নেটিজেনদের মধ্যে উৎসাহের অন্ত নেই।    

জনপ্রিয়

Back To Top