আজকালের প্রতিবেদন: কনকনে শীত উপেক্ষা করে শনিবার বার্লিনের রাস্তায় ক্যা–বিরোধী মিছিলে পা মেলালেন প্রায় শখানেক ছাত্রছাত্রী–সহ অন্যরা। মিছিলের ব্যানারে লেখা ছিল ‘‌ভারতীয় সংবিধানকে রক্ষা করুন’‌। সকালে অংশগ্রহণকারীরা জড়ো হন ব্রান্ডেনবুর্গ গেটের সামনে। সেখান পাঠ করা হয় ভারতের সংবিধানের প্রস্তাবনা অংশ। এরপর দিনভর হেঁটে মিছিল পৌঁছোয় ভারতীয় দূতাবাসের সামনে। মাঝে চার্লি মোড়ে মিছিলকারীরা উর্দু ভাষায় গলা মেলান বেল্লা সিয়াওয়ের গানের সুরে। সঙ্গে গিটারে ঝঙ্কার তোলেন এক তরুণী। পশ্চিমবাংলা, গুজরাট, ত্রিপুরা, কেরল, তামিলনাড়ু, পাঞ্জাবের বার্লিন প্রবাসী ছাত্রছাত্রী ও নাগরিকেরা পা মেলান মিছিলে। ছিলেন জেএনইউয়ের এক ছাত্রও। ছিলেন শিশুদের সঙ্গে নিয়ে জার্মান মহিলারা। এসেছিলেন এক প্যালেস্তিনি যুবকও। মিছিল শেষে চলে বক্তৃতা। একদা নাৎসিনগরী বার্লিনের রাস্তায় এক তরুণের গলায় স্লোগান ওঠে ‘‌নিয়ে ভইয়েডার ফ্যাসসিমাস’‌, ‘আর নয় ফ্যাসিবাদ’‌। একইভাবে সিএএ, এনআরসি ও এনপিআরের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ সংগঠিত হয় লন্ডনে ভারতীয় হাই কমিশন দপ্তরের সামনেও। ৮ জানুয়ারির ১২ ঘণ্টার এই ধরনায় সামিল হন ২০০র বেশি ছাত্রছাত্রী ও সাধারণ মানুষ। সমাবেশ থেকে অবিলম্বে নাগরিকত্ব আইন বাতিলের দাবি ওঠে। জমায়েতে হাজির ছাত্রছাত্রীরা অমিত শাহের পদত্যাগ দাবি করেন। জেএনইউ, জামিয়া মিলিয়া ,আলিগড় বিশ্ববিদ্যালয়ের ঘটনা নিয়েও সোচ্চার হন তাঁরা। দিনভর চলে গান, কবিতাপাঠ, বক্তৃতা ও থিয়েটার ওয়ার্কশপ।

জনপ্রিয়

Back To Top