আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ভয়াবহ বিস্ফোরণে কেঁপে গেল লেবাননের রাজধানী বেইরুট। সেই মুহূর্তের কিছু ভিডিও এখন সোশ্যাল মিডিয়ায় ঘুরে বেরাচ্ছে। কোথাও দেখা যাচ্ছে সুন্দরী এক মহিলার বিয়ের সাজে ছবির জন্য পোজ দিচ্ছিলেন, এমন সময়ে কেঁপে উঠল সবকিছু। ক্যামেরা নড়েচড়ে গেল। বিশাল লম্বা সাদা পোশাক পরেই কনেকে ছুটে পালাতে দেখা গেল। কোথাও বা এক মহিলা বারান্দা ঝাঁট দিচ্ছিলেন। বারান্দার ধারে ছোট্ট একটি মেয়ে বসেছিল। আচমকাই বারান্দায় বিশাল ঝাঁকুনি। উড়ে গেল সবকিছু। মেয়েটিকে কোলে নিয়ে দৌড়ে ঘরে ঢুকে গেলেন মহিলা। আরেকটি ভিডিও দেখা যাচ্ছে, এক বাবা তাঁর ছোট্ট ছেলেকে কীভাবে বাঁচাবেন বুঝতে পারছেন না। ছেলে ভয় পেয়ে গিয়েছে। ঘরের মধ্যে সন্তানকে কোলে নিয়ে এদিক থেকে ওদিক ঘুরছেন। শেষমেশ টেবিলের তলায় ঢুকিয়ে দেয় তাঁকে। প্রথম ভিডিওটির ভিউজ ইতিমধ্যেই ২.‌৪ মিলিয়ন ছাড়িয়েছে। আর দ্বিতীয়টি ৪৭২.‌৮ হাজার। ৩৭১.‌২ হাজার মানুষ দেখেছে ভিডিওটি। সারা বিশ্বের মানুষ ভিডিওগুলি দেখে আতঙ্কিত।  

 

 

 

এর সঙ্গে ছড়িয়ে পড়েছে বিস্ফোরণের কিছু ভয়াবহ ভিডিও। এবং ভিডিওর শেষে দেখা যাচ্ছে, যাঁরা ভিডিও করছিলেন, তাঁদের হাত থেকে ফোন ছিটকে যায়। আশেপাশে সবকিছু ভেঙে টুকরো হয়ে হাওয়ায় উড়তে থাকে। 
মঙ্গলবার বিকেলে স্থানীয় সময় সন্ধে ছ’‌টা নাগাদ বেইরুটের বন্দরে পর পর দু’‌টি বিস্ফোরণ হয়। এতটাই তীব্র ছিল সে দু’‌টি বিস্ফোরণ, যে ২৪০ কিলোমিটার দূরে সাইপ্রাস দ্বীপেও তা শোনা গিয়েছে। সেখানকার লোকজন ভেবেছিলেন ভূমিকম্প হয়েছে। ভগ্নস্তূপেখন গোটা বেইরুট। আশপাশের ঘরবাড়ি ভেঙে যায়। মৃতের সংখ্যা এখনও পর্যন্ত প্রায় ১০০। আহত হয়েছেন চার হাজারেরও বেশি মানুষ। 
লেবাননের প্রধানমন্ত্রী হাসান দিয়াব জানিয়েছেন, বেইরুট বন্দরের একটি গুদামে ২,৭৫০ টন অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট জমা ছিল। তার জেরেই দুর্ঘটনা। দিয়াবের কথায়, ‘‌এটা কিছুতেই মানা যায় না, যে ছ’‌ বছর ধরে একটি গুদামে ২,৭৫০ টন অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট জমা রয়েছে। কোনও সতর্কতামূলক ব্যবস্থাও নেওয়া হয়নি। এই বিষয়ে কড়া পদক্ষেপ নেওয়া হবে।’  

জনপ্রিয়

Back To Top