আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ চীনের হুঁশিয়ারির জবাব দিল বাংলাদেশ। আমেরিকা ও ভারতের সঙ্গে বেজিং বিরোধী কৌশলগত আঁতাতের পথে হাঁটলে পরিণাম খারাপ হবে বলে বাংলাদেশকে হুঁশিয়ারি দিয়েছিল চীন। যার জবাবে বাংলাদেশের বিদেশমন্ত্রী এ কে আবদুল মোমেন এদিন বলেন, ‘‌আমরা একটি স্বাধীন সার্বভৌম রাষ্ট্র। আমাদের বিদেশ নীতি আমরা নিজেরাই নির্ধারণ করে নিতে পারব। দেশের মঙ্গলের জন্য আমরা কী কাজ করব না করব, আমাদের মৌলিক অবস্থানের ভিত্তিতে আমরা সেই সিদ্ধান্ত নেব।’‌ 
ঢাকায় অবস্থিত চীনা রাষ্ট্রদূত লি জিমিং সোমবার বলেন, ‘‌মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বাধীন কোয়াড গোষ্ঠীকে চীন বিরোধী বলে মনে করে বেজিং। এমনকি চীন মনে করে, এতে কোনওভাবে বাংলাদেশের অংশগ্রহণ ঢাকা–বেজিং সম্পর্ককে খারাপ করবে।’‌ জবাবে বাংলাদেশের বিদেশমন্ত্রী বলেন, ‘‌চীনের রাষ্ট্রদূত তাঁর দেশের অবস্থানের কথা বলেছেন। এই কোয়াড গোষ্ঠীর তরফে আমাদের আছে কোনও অনুরোধ আসেনি। তাই এটা নিয়ে বাড়তি কথার দরকার নেই।’‌ তাঁর আরও সংযোজন, ‘‌চীন অন্যের বিষয়ে বড় একটা মাথা ঘামায় না। এরকম উগ্র কথা কাউকে বলতে শুনিনি। যা খুবই দুঃখজনক। আমরা কী করব না করব, সেটা আরেকজন বড় করে বলছেন। দেশের মঙ্গলের জন্য যা দরকার, সেটাই করা হবে।’‌ আবদুল মোমেনের কথায়, ‘‌চীনের কাছ থেকে এরকম ব্যবহার আশা করিনি।’‌ 
ভারত–প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে চীনের প্রভাবকে খর্ব করতে আমেরিকা, ভারত, জাপান, অস্ট্রেলিয়া একটি কৌশলগত জোট গঠন করেছে। যার নাম কোয়াড। 

জনপ্রিয়

Back To Top