আজকাল ওয়েবডেস্ক: পাকিস্তানের রক্ষণশীল প্রদেশ খাইবার–পাখতুনখোয়ারের সেলুনগুলিতে নিষিদ্ধ করা হল ফ্রেঞ্চ এবং ইংলিশ দাড়ির স্টাইল। এমনকী চুলও কাটতে হবে ইসলাম নিয়মানুযায়ী। করা চলবে না ট্রিমিং। পেশোয়ারে এই প্রদেশের সুলেমানি হেয়ার ড্রেসার সংগঠনের প্রেসিডেন্ট শরিফ কাহলো জানান, ২ লক্ষ হেয়ার ড্রেসার এই সংগঠনের অন্তর্ভুক্ত  এবং তাঁরা সকলেই এই সিদ্ধান্তকে স্বতঃস্ফূর্তভাবে মেনে নিয়েছেন। 
শরিফ কাহলো বলেন, ‘‌আমরা মুসলিম এবং আমরা ইসলামে যা শিখেছি সেটাই অনুসরণ করব। যাঁরা ফ্রেঞ্চ এবং ইংলিশ ছাট নিজেদের চুল ও দাড়িতে চান তাঁরা আমাদের সেলুনে আসবেন না।’‌‌ শরিফ কাহলো জানান, কোনও ধরনের চাপ ছাড়াই তাঁদের সংগঠন এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

এই সিদ্ধান্তের আগে সংগঠনটি ইসলামিক স্কুলের সঙ্গে বসে বৈঠক করেন এবং তারপরই স্টাইলিশ দাড়ি কাটা নিষিদ্ধ করা হয়। এই সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক আদিল খান জানান, এই সংগঠনের বাইরে অন্য হেয়ার ড্রেসাররা গুজব ছড়াচ্ছেন যে এই সিদ্ধান্তের ফলে ভুল বার্তা যাবে বিদেশিদের কাছে। বিশেষ করে যে সব চিনের নাগরিকরা পাকিস্তানে থাকে এই সিদ্ধান্তের ফলে চিন–পাকিস্তানের অর্থনৈতিক করিডরে এর প্রভাব পড়বে। ইতিমধ্যেই খাইবার–পাখতুনখোয়া প্রদেশে নোটিস জারি করে এই সিদ্ধান্তের কথা জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। সংগঠনের প্রেসিডেন্ট শরিফ কাহলো জানান, ইসলাম বিরুদ্ধ কোনও ধরনের কাজ তাঁদের সংগঠনের অন্তর্গত সেলুনগুলি করবে না।      


 

জনপ্রিয়

Back To Top