আজকাল ওয়েবডেস্ক: সরকার বিরোধী কার্যকলাপের সঙ্গে যুক্ত থাকার অভিযোগে আঠারো বছরের মুরতাজা কুরেইরিসকে মৃত্যুদণ্ডের সাজা দিল সৌদি রাজতন্ত্র। পূর্ব সৌদি আরবের মূল শিয়া এলাকার অন্তর্গত কাতিফ প্রদেশের একটি পরিবারে জন্ম মুরতাজার। সুন্নি সংখ্যাগরিষ্ঠ সৌদি আরবে শিয়া সম্প্রদায় সংখ্যালঘু। মুরতাজার ভাই আলি কুরেরিসও ২০১১ সালে সরকার বিরোধী প্রতিবাদে অংশগ্রহণ করে নিহত হয়। মুরতাজাকে যখন গ্রেপ্তার করা তখন তার বয়স ১৩ বছর। কোনও লিখিত অভিযোগ ছাড়াই তাকে গ্রেপ্তার করা হয় এবং কোনও রকম আইনি সাহায্যের সুযোগ না দিয়ে তাকে নির্জন কারাবাসে পাঠানো হয়। ২০১৮ সালের অগাস্ট মাসে প্রথমবার তার বিরুদ্ধে সরকার বিরোধী কার্যকলাপের লিখিত অভিযোগ আনা হয়। একটি আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম ২০১১ সালে একটি ভিডিও প্রকাশ করে যেখানে মুরতাজাকে একটি প্রতিবাদ মিছিলের প্রথম সারিতে দেখা গিয়েছে। সেই ভিডিওটি প্রকাশিত হওয়ার পরই মুরতাজাকে গ্রেপ্তার করা হয়। 
আঠারো বছরের একটি ছেলেকে মৃত্যুদণ্ডের সাজা দেওয়ার বিষয়টি ছড়িয়ে পড়তেই বিশ্বজুড়ে শোরগোল পড়ে যায়। সৌদি আরবের আইনি ব্যবস্থার কড়া সমালোচনা করে  আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা। সৌদি আরবের একটি সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা যাচ্ছে, এই বছর সৌদিতে ৩৭ জন মানুষকে মৃত্যুদণ্ডের সাজা শোনানো হয়, তাদের মধ্যে ৩৩ জন শিয়া সম্প্রদায়ের মানুষ। তাঁদের বিরুদ্ধে অভিযোগ, তাঁরা চরমপন্থী, সন্ত্রাসী মতাদর্শে বিশ্বাসী।

জনপ্রিয়

Back To Top