আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ আমাজনের বনে দাবানলের প্রকোপ আরও তীব্র আকার নিয়েছে। ব্রাজিলের উত্তরাংশের রোরাইমা, একর্‌, রন্ডোনিয়া এবং আমাজোনা সব থেকে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত।    
ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইম্যানুয়েল ম্যাক্রোঁ এবং রাষ্ট্রপুঞ্জের মহাসচিব অ্যান্টোনিও গুয়েত্রাস টুইটারে আমাজনের দাবানল নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেছেন, এটা আন্তর্জাতিক সঙ্কট। আমাজনের দাবানল এবছর অনেকটাই বেড়ে গিয়েছে। বন কর্তনের প্রভাব পড়েছে আবহাওয়া মন্ডলে। জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঞ্জেলা মের্কেলও এব্যাপারে উদ্বেগপ্রকাশ করেছেন।
প্রতিক্রিয়ায় বলসোনারো বিদেশি রাষ্ট্রগুলিকে এব্যাপারে নাক না গলাতে বলে ফেসবুকে ক্ষোভপ্রকাশ করে লিখেছেন, ‘‌এই দেশগুলি আমাদের টাকা পাঠায় সেটা দান করার জন্য নয়, তাদের লক্ষ্য আমাদের সার্বভৌমত্বে নাক গলানো।’‌ যদিও স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবারই সকালের দিকে বলসোনারো বলেছিলেন, এতো বড় দাবানল নিয়ন্ত্রণের আর্থিক ক্ষমতা ব্রাজিলের নেই কারণ ‌আমাজন ইওরোপের থেকেও আয়তনে বিশাল।
প্রসঙ্গত, ব্রাজিলের উন্নয়নের আশ্বাস দিয়ে আমাজনের বন কর্তনের জন্য ইওরোপের থেকে আর্থিক সহায়তা চেয়েছিলেন বলসোনারো। কিন্তু এমাসের শুরুতেই জার্মানি এবং নরওয়ে বলসোনারোর উন্নয়নমূলক প্রকল্পে বিরূপ মনোভাব দেখিয়ে সেই সাহায্য বন্ধ করে দিয়েছিল। সেই সময় বলসোনারো বলেছিলেন, ‘‌ব্রাজিলের ওই অর্থ সাহায্যের প্রয়োজন নেই’‌। শনিবার থেকে শুরু হতে চলা জি–৭ শীর্ষ সম্মেলনেও আমাজনের দাবানল উল্লেখযোগ্য ভূমিকা নেবে বলে মনে করছেন রাষ্ট্রনায়করা।
ব্রাজিলের মহাকাশ গবেষণা সংস্থা দ্য ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট ফর স্পেস রিসার্চ বা আইএনপিই–র তথ্য অনুযায়ী গতবছর থেকে এবছর এপর্যন্ত আমাজনের প্রায় ৮৫ শতাংশ বন পুড়ে গিয়েছে। সরকারি হিসেব অনুযায়ী, ২০১৩ সালে যেখানে ২৫০০০ দাবানল হয়েছিল, সেখানে এবছর ৭৫০০০টি দাবানল ইতিমধ্যেই হয়ে গিয়েছে। ২০১৮–তেও যা ছিল মাত্র ৪০০০০। পরিবেশবিদদের অভিযোগ, জানুয়ারিতে ক্ষমতায় আসার পর থেকেই দক্ষিণপন্থী প্রেসিডেন্ট বলসোনারো বারবার বলে এসেছিলেন তিনি বিশ্বাস করেন আমাজনের বনকে ব্যবসার জন্য খুলে দেওয়া উচিত। যাতে খনি, কৃষি এবং কাঠ কাটার কোম্পানিগুলি প্রাকৃতিক সম্পদ ব্যবহার করতে পারে।

তাঁর উৎসাহেই কৃষকরা এভাবে আমাজনের বন ধ্বংস করতে পেরেছে। জবাবে স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার বলসোনারো স্বীকার করেছেন, কৃষকরাই শস্য বপনের জন্য অবৈধভাবে আগুন লাগিয়ে থাকতে পারে। যদিও বুধবার তিনি অভিযোগ করেছিলেন, ব্রাজিল সরকারের ভাবমূর্তি নষ্ট করার জন্যই স্বেচ্ছাসেবী সংস্থাগুলি ইচ্ছা করে বনে আগুন লাগিয়েছে।
আমাজনের দাবানল নিয়ে চিন্তিত লিওনার্ডো ডিক্যাপ্রিও, ম্যাডোনার মতো হলিউড তারকারা। বলসোনারোর আমাজন সাফাইয়ের উদ্যোগকে তুলোধনা করে ম্যাডোনা ইনস্টাগ্রামে লিখেছেন, ‘‌প্রেসিডেন্ট বলসোনারো দয়া করে নিজের নীতি বদলান এবং শুধু নিজের দেশকেই নয়, সারা বিশ্বকে সাহায্য করুন।’ বরাবরই বন সৃজনের পক্ষে সওয়াল করায় জনপ্রিয় লিওনার্ডো তাঁর ৩৩.‌৮ মিলিয়ন অনুরাগীকে আমাজন রক্ষার জন্য অর্থ দান করতে অনুরোধ করেছেন নিজের ইনস্টাগ্রাম পেজে। এমনকি অনুরাগীদের সেই সব নেতাদের পক্ষে ভোট দিতে বলেছেন লিও যাঁরা পরিবেশ রক্ষায় কাজ করতে ইচ্ছুক।
আমাজনের দাবানলের ঘন কালো ধোঁয়া আমাজন অঞ্চল পেরিয়ে আটলান্টিক উপকূলে ছড়িয়ে পড়েছে। সাও পাওলোর আকাশের প্রায় ৩২০০ কিলোমিটার কালো ধোঁয়ায় ঢেকে গিয়েছে। এপর্যন্ত প্রায় ২২৮ মেগাটন কার্বন ডাইঅক্সাইড নির্গত হয়েছে পুড়তে থাকা জঙ্গল থেকে। কার্বন মনোঅক্সাইড ছড়িয়ে পড়েছে দক্ষিণ আমেরিকার উপকূলজুড়ে। কলোম্বিয়ার উত্তরাংশে আমাজনের বনের একাংশ পড়ছে। দাবানল নিয়ন্ত্রণের জন্য তারা ব্রাজিলকে সাহায্য করছে বলে বিবৃতি দিয়ে জানিয়েছে সেদেশের বিদেশ মন্ত্রক। বলিভিয়ার পূর্বাংশও আমাজনের এলাকাভুক্ত হওয়ায়, ইতিমধ্যেই সেখানের প্রায় ৬ বর্গ কিলোমিটার অঞ্চল দাবানলের গ্রাসে চলে গিয়েছে। এয়ার ট্যাঙ্কার ভাড়া করে আকাশপথে জল ছিটিয়ে তা নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা চালাচ্ছে বলিভিয়া।
আমাজন উপত্যকা ৩০ লক্ষ উদ্ভিদ এবং প্রাণীজগৎ এবং ১০ লক্ষ আদিবাসীর ঘরবাড়ি। প্রতিবছর সারা বিশ্বের কয়েক মিলিয়ন টন কার্বন আমাজনের জঙ্গল শুষে নেয়। যার ফলে পৃথিবীতে পরিবেশের ভারসাম্য বজায় থাকে। সেখানে আইএনপিই বলছে, গতবছরের জুলাইয়ের থেকে এবছরের জুলাইয়ে গাছ কাটা হয়েছে ২৭৮ শতাংশ। শুধু জুলাইয়েই দাবানলের ১০০০০টি সতর্কবার্তা ব্রাজিল সরকারকে পাঠিয়েছিল আইএনপিই।
ছবি:‌ বিবিসি

জনপ্রিয়

Back To Top