আজকালের প্রতিবেদন: ছাত্র ভোট নিয়ে আলোচনার জন্য বিভিন্ন ছাত্র সংগঠনের সঙ্গে সোমবার বৈঠকে বসতে চলেছেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চ্যাটার্জি। বৈঠকে তৃণমূল ছাত্র পরিষদ, এসএফআই, ছাত্র পরিষদ, ডিএসও এবং যাদবপুর ও প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র প্রতিনিধিদের ডাকা হয়েছে বলে উচ্চশিক্ষা দপ্তর সূত্রে জানা গেছে। ওইদিন দুপুরে বৈঠকটি হওয়ার কথা। ছাত্র ভোট নিয়ে ছাত্র সংগঠনগুলি কী ভাবছে, তারা কী চাইছে, কবে নির্বাচন হতে পারে, সেগুলি জানতে চাইবেন শিক্ষামন্ত্রী। প্রসঙ্গত, কিছুদিন আগে ছাত্র ভোট নিয়ে জানতে চাইলে শিক্ষামন্ত্রী জানিয়েছিলেন, নির্বাচনের দিন ঠিক করার আগে ছাত্র সংগঠনগুলির সঙ্গে কথা বলবেন। 
 বৃহস্পতিবার এ নিয়ে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের ইঞ্জিনিয়ারিং, কলা ও বিজ্ঞান শাখার পড়ুয়াদের সাধারণ সভা ছিল। ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের বিদায়ী ছাত্র সংসদ ফেটসু–‌র সাধারণ সম্পাদক অভীক দাস বলেন, ‘‌আমরা অরাজনৈতিক ছাত্র কাউন্সিল নয়। ইউনিয়নই চাই। একই সঙ্গে আমাদের দাবি অবিলম্বে নির্বাচনের দিন ঘোষণা করতে হবে। কারণ ২ বছর রাজ্যে ছাত্র ভোট হয়নি। শেষ ভোট হয়েছিল ২০১৭ সালে।’‌ যাদবপুরে তিনটি শাখায় তিনটি আলাদা ছাত্র সংসদ রয়েছে। নতুন নিয়মে একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে একটিই ছাত্র কাউন্সিল গড়ার কথা বলা হয়েছে। তা নিয়েও আপত্তি পড়ুয়াদের। এই বিষয়টি নিয়ে এর আগেও শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে কথা হয়েছে যাদবপুরের পড়ুয়াদের। সোমবারের বৈঠকে এই বিষয়টিও উঠবে। সেক্ষেত্রে যাদবপুরের জন্য ছাত্র কাউন্সিলে তিনটি শাখার পড়ুয়াদের মধ্যে থেকে তিনজন সাধারণ সম্পাদক নির্বাচনের বিষয়টিও ভাবা হতে পারে। 
তৃণমূল ছাত্র পরিষদ ছাড়া, বাকি সব কটি সংগঠনই ছাত্র কাউন্সিল নয়, ছাত্র ইউনিয়ন চায়। এসএফআইয়ের রাজ্য সম্পাদক সৃজন ভট্টাচার্য বলেন, ‘‌আমরা চাই ছাত্র নির্বাচনে যেন সব সংগঠন অংশ নিতে পারে। সবাই যেন মনোনয়ন জমা দিতে পারে।’‌ ডিএসও এবং ছাত্র পরিষদের রাজ্য নেতৃত্বেরও বক্তব্য, কাউন্সিল নয়, তাঁরা নির্বাচিত ছাত্র ইউনিয়ন বা সংসদ চান। 
প্রসঙ্গত, সেন্ট জেভিয়ার্স এবং লেডি ব্রোবোর্ন কলেজের ছাত্র সংসদের ধাঁচে ইতিমধ্যেই অরাজনৈতিক ছাত্র কাউন্সিল গঠনের বিধি তৈরি করেছে রাজ্য। এ নিয়ে বছর দুয়েক আগে বিজ্ঞপ্তিও প্রকাশিত হয়েছে। ‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top