আজকাল ওয়েবডেস্ক: পাকা পেয়ারা খেতে যত মানুষ পছন্দ করেন, তাঁদের চেয়ে সংখ্যায় বোধহয় কিছুটা হলেও বেশি ডাঁসা পেয়ারা পছন্দ করার লোকজন। তবে সমীক্ষা বলছে পাকা পেয়ারাই বেশি ভাল স্বাস্থ্যের জন্য।
এমনিতেই অনেকে জানেন এই ফলে যথেষ্ট পরিমাণে ভিটামিন, মিনারেল আছে। তাই অনেকেরই বাড়িতে থাকে এই গাছ। ডাঁসা পেয়ারার ভিতরে থাকা দানা দাঁতে আটকে একটা সমস্যা হলেও, পাকা পেয়ারায় সে সমস্যাটুকুও নেই। ডাক্তাররা তাই বলছেন টানা সাতটা দিন সকালে খালি পেটে খেয়ে ফেলুন পাকা পেয়ারা।
চোখের যত্নে ভিটামিন ‘‌এ’‌ খুব দরকারি , সেকথা তো অনেকেই জানি। তাই গাজর, কুমড়োর মতো ক্যারোটিন যুক্ত খাবার বেশি খেতে বলা হয় চোখ ভালো রাখতে। কিন্তু এই তালিকাতে যে রয়েছে পাকা পেয়ারাও, সেটা হয়তো অনেকেই জানতেন না। এতে থাকা নিউট্রিয়েন্ট, ক্যাটার‌্যাক্ট তৈরিতে বাধা দেয়। এমনকি কারও দৃষ্টিশক্তি কম হলে, তারও পাকা পেয়ারা খেলেই অনেকটাই লাভ হয়, বলছেন চক্ষু বিশেষজ্ঞরা।
মুখের আলসারের সমস্যায় ভুগছেন যাঁরা, তাঁরা পাকা পেয়ারা খেলে মুখের ঘা অনেকটাই কমে যায়। এমনিতেই বলা হয়, পেয়ারা পাতা জলে ফুটিয়ে সেই জলে মুখ ধুলে মুখে দুর্গন্ধের সমস্যা কমে যায়। তাই পাকা পেয়ারা খেলে তা যে মুখের স্বাস্থ্যের খেয়াল রাখবে তা বলাই বাহুল্য। 
স্কার্ভি এমন একটা রোগ, যা আমাদের রক্তে ভিটামিন–‘‌সি’‌–এর অভাবে হয়। ভিটামিন–‘‌সি’‌ আমরা লেবু থেকে পাই বলেই জানি। কিন্তু সমীক্ষা বলছে, কমলালেবুতে থাকা ভিটামিন–‘‌সি’‌ এর চেয়েও বেশি ভিটামিন আছে পাকা পেয়ারাতে। তাই স্কার্ভি হলে যত বেশি সম্ভব পেয়ারা খেতে হবে। এমনকি স্কার্ভি হওয়ার সম্ভাবনা থাকলেও পাকা পেয়ারা সেই রোগের সামনে ঢালের মতো দাঁড়ায়। 
ক্যানসার আজকাল ঘরে ঘরে। প্রায় মহামারীর আকার ধারণ করেছে এই মারণ রোগ। লাইকোপেন এমন একটি ফাইটো নিউট্রিয়েন্ট, যা সহজেই আমাদের দেহকোষগুলোকে টিউমার এবং ক্যানসারের হাত থেকে রক্ষা করে। এই লাইকোপেনই যথেষ্ট পরিমাণে থাকে পাকা পেয়ারাতে। 
সার্বিকভাবে এই ফল থেকে আমাদের শরীর যথেষ্ট পরিমাণে প্রতিরোধ ক্ষমতা গড়ে তুলতে সক্ষম হয়। তাই এই ফলকে আর হেলাফেলা না করে, সকালে খালি পেটে একটা করে পাকা পেয়ারা খেতে শুরু করে দিন।‌

জনপ্রিয়

Back To Top