আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ যাব যাব করেও শীত কিছুতেই পুরোপুরি যাচ্ছে না। ফলে চাদর না কম্বল, পাখা চলবে না চলবে না?‌ এই প্রশ্নেই জেরবার এখন মানুষজন। আর এই ঠান্ডা–গরমে শরীরের দফারফা। নাক বন্ধ, গলা ঘড়ঘড়, বুকে কফ, গা–হাত–পা ব্যথা, জ্বর-জ্বর ভাব‌। কমবেশি সব বাড়িতেই একই ছবি। কারণ এই সময়ে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কিছুটা কমে যায়। ফলে ভাইরাস, ব্যাকটিরিয়ার সহজেই সংক্রমণ ঘটে। এই শারীরিক সমস্যা সামলাতে ঘরোয়া উপায়ে মুক্তি পাবেন কী ভাবে তা জেনে নিন।
হয়তো আপনি জ্বর–জ্বর ভাবে ক্লান্ত। বাড়ি থেকে বেরিয়ে ডাক্তারের কাছে যেতে পারছেন না। আবারও অফিসও যেতে হচ্ছে। শরীর ভার–ভার লাগার কারণ, বুকে কফ বসে রয়েছে। একটা পেঁয়াজকে গোল করে কিছুটা কেটে নিয়ে জলে ভিজিয়ে রাখুন ৫ থেকে ৬ ঘণ্টা।  তারপর, সেই ভেজানো পেঁয়াজ বেটে সেই পেঁয়াজের পেস্টটা পরপর কদিন খান। আপনার সর্দি–কাশি দূরে পালাবে। শুধু পেঁয়াজের পেস্ট খেতে ভালো না লাগলে এতে কিছুটা মধু মিশিয়ে নিন। গলা খুসখুস, নাকবন্ধ সব সেরে যাবে। তবে অবশ্যই এক্ষেত্রে পরিমাণটা খুব গুরুত্বপূর্ণ। রোজ এক চা চামচই যথেষ্ট।
যাঁরা পেঁয়াজ খান না, তাঁরা ঘি-য়ের সঙ্গে একটু গোলমরিচ মিশিয়ে খেলেও একই উপকার পাবেন। গোলমরিচের ঝাঁঝ সহ্য না হলে, আদাকুচির সঙ্গে অল্প নুন মিশিয়ে খেলেও সমস্যা কম হয় অনেক সময়ে। আর এগুলি সবই প্রায় সবার রান্নাঘরেই খুব সহজে মেলে।
ঘরোয়া এই টোটকায় কাজ হলে স্বাভাবিকভাবেই আর অ্যান্টিবায়োটিক খেতে হবে না বারবার। তাই এই বিকল্প ব্যবস্থাগুলো জেনে রাখুন। আর এই শীতের আসা যাওয়ার খামখেয়ালিপনার মাঝে নিজেকে রাখুন সুস্থ, সুন্দর।‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top