আজকাল ওয়েবডেস্ক: কোভিড–১৯–এর সম্ভাব্য ছয় কোটি ডোজ ইংল্যান্ডে পাঠানোর জন্য চুক্তি স্বাক্ষর করল জিএসকে এবং স্যানোফি কোম্পানি। অন্যান্য দেশের সরকারের সঙ্গেও এব্যাপারে তাদের কথাবার্তা চলছে, জানিয়েছে দুই কোম্পানিই।
যদিও এখনও কোনও নির্দিষ্ট ওষুধ আবিষ্কার হয়নি কোভিডের। কিন্তু কিছু ওষুধ, যেগুলিতে সংক্রমিতদের সুস্থ করে তুলতে সাহায্য করছে, সেগুলিকেই আপাতত কোভিডের সম্ভাব্য ডোজ বলছেন চিকিৎসকরা। গত এপ্রিলেই স্যানোফি এবং জিএসকে মিলে এই কাজ শুরু করেছিল। চুক্তির আর্থিক পরিসংখ্যান এখনও দেওয়া হয়নি। কিন্তু কোম্পানির বিবৃতি থেকে জানা গিয়েছে, যদি ক্লিনিক্যাল তথ্য সদর্থক হয়, তাহলে তাদের প্রতিষেধকের নিয়ন্ত্রিত অনুমোদন ২০২১–এর প্রথমার্ধেই মিলে যাবে। ওই প্রতিষেধকের প্রথম পরীক্ষামূলক কাজ শুরু হবে আগামী সেপ্টেম্বরে। স্যানোফির প্রোটিন কোভিড–১৯ অ্যান্টিজেন এবং জিএসকে–র প্যানডেমিক অ্যাডজুভেন্ট প্রযুক্তি মিশিয়ে তৈরি করা হবে প্রতিষেধক। শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোর উপায়ই অ্যাডজুভেন্ট। বেশিরভাগ প্রতিষেধকে এর মুখ্য ভূমিকা রয়েছে। প্রতিষেধকের সঙ্গে মিশলে এর রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কয়েক গুণ বেড়ে যায় এবং দীর্ঘকাল কাজ দেয়।
শুধু ব্রিটেনই নয়, ইইউ, ইতালি এবং ফ্রান্সে তাদের ডোজ পাঠানোর জন্যও আলোচনা চালাচ্ছে দুই কোম্পানি। ইইউ–কে ৩০ কোটি ডোজ পাঠানোর চুক্তি হস্তগত করতে চেষ্টাও চালাচ্ছে তারা।     ‌

জনপ্রিয়

Back To Top