আজকালের প্রতিবেদন: দেশের বিজ্ঞানীদের মাতৃভাষায় বিজ্ঞানচর্চায় জোর দেওয়ার আবেদন জানালেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। যাতে বিজ্ঞানের প্রতি তরুণ প্রজন্মের আরও আকর্ষণ বাড়ে। সোমবার আচার্য সত্যেন্দ্রনাথ বসুর ১২৫তম জন্মদিবস উপলক্ষে কলকাতার এস এন বোস ন্যাশনাল সেন্টার ফর বেসিক সায়েন্সেস–এ আয়োজিত অনুষ্ঠানে ভিডিও কনফারেন্সে বক্তৃতা করেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘‌মাতৃভাষায় বিজ্ঞানচর্চার ক্ষেত্রে অধ্যাপক বসু ধর্মযোদ্ধার ভূমিকা পালন করেছিলেন। তিনি বাংলা ভাষায় ‘‌জ্ঞান ও বিজ্ঞান’ পত্রিকা চালু করেছিলেন তরুণদের মধ্যে বিজ্ঞানের আকর্ষণ আরও বাড়িয়ে তুলতে। আমাদের উচিত বিজ্ঞানের আরও বেশি প্রসারের দায়িত্ব নেওয়ার। এ কাজে ভাষা যেন কখনই অন্তরায় হয়ে না দাঁড়ায়।’‌ প্রধানমন্ত্রী বাংলা ভাষায় কিছুটা সময় বক্তৃতা করেন। তিনি আরও বলেন, ‌বছরভর তাঁর জন্মবার্ষিকী পালিত হবে। বিজ্ঞানের প্রতি ভালবাসাই হাজারও প্রতিকূলতার মাঝে তাঁেক সাফল্য এনে দিয়েছিল। নতুন ভারত তৈরিতে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির বড় ভূমিকা থাকা উচিত বলে এদিন মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী। যাঁরা গবেষণা বা বিজ্ঞানের কাজে সম্পৃক্ত রয়েছেন, তাঁরা নতুন ভারত গড়ার লক্ষ্যে কাজ করুন, চাইছেন মোদি। নিজের ভাষণে এদিন বিভিন্ন ক্ষেত্রে বাঙালিদের অবদানের কথা উল্লেখ করেন মোদি। বিজ্ঞানের দুনিয়ায় বিশ্বের সেরাদের উপহার দিয়েছে বাংলা, উল্লেখ করেছেন প্রধানমন্ত্রী। তাঁর মতে, উদ্ভাবন এবং সাফল্য কেবল পরীক্ষাগারের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকা ঠিক হবে না। সব মানুষের কাছে পৌঁছতে পারলে এবং তাদের জীবনে বদল আনতে পারলে বিজ্ঞানীদের কঠিন পরিশ্রম আসল মর্যাদা পাবে। মানুষের আর্থসামাজিক সমস্যা দূর করতে সেগুলি যাতে কার্যকর হয় সেদিকে নজর রাখতে হবে। মধ্যবিত্ত, আর্থিকভাবে দুঃস্থ মানুষের জীবন আরও সহজতর করে তুলতে উদ্ভাবনীশক্তি যাতে কাজে লাগে, তা দেখা দরকার। এদিন রাজ্য জুড়ে নানা অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়ে পালিত হয় আচার্য সত্যেন্দ্রনাথ বসুর জন্মদিবস। এস এন বোস ন্যাশনাল সেন্টার ফর বেসিক সায়েন্সেসে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিমন্ত্রী হর্ষবর্ধন, ওই মন্ত্রকের রাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াই এস চৌধুরি, ইন্ডিয়ান ন্যাশনাল সায়েন্স অ্যাকাডেমির সভাপতি বিজ্ঞানী এ কে সুদ, এস এন বোস ন্যাশনাল সেন্টার ফর বেসিক সায়েন্সেসের অধিকর্তা সমিতকুমার রায়–সহ বিশিষ্টরা। সেখানে সত্যেন্দ্রনাথ বসুর স্মরণে প্রকাশতি হয় বিশেষ ডাকটিকিট। সাহা ইনস্টিটিউট অফ নিউক্লিয়ার সায়েন্সেসে বক্তৃতা করেন ভারতরত্ন সি এন আর রাও। বঙ্গীয় বিজ্ঞান পরিষদের সামনে থেকে শুরু হওয়া পদযাত্রা এ পি সি রোড, মানিকতলা, রাজাবাজার সায়েন্স কলেজ, সুকিয়া স্ট্রিট, রাজা রামমোহন রায় সরণি, বিবেকানন্দ রোড, বিধান সরণি হয়ে শেষ হয় আচার্য সত্যেন্দ্রনাথ বসুর বাড়ির সামনে। সত্যেন্দ্রনাথ বসুর বাড়িতে গিয়ে তাঁর প্রতিকৃতিকে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান উত্তর কলকাতা উদয়ের পথের সদস্যরা।‌

আচার্যের ১২৫তম জন্মদিনে শ্রদ্ধা উদয়ের পথে–র সদস্যদের। সোমবার। 

জনপ্রিয়

Back To Top