আজকাল ওয়েবডেস্ক: প্রাচীনকাল থেকে ভারতের ঋষিমুনিদের মধ্যে প্রচলিত যোগের অন্যতম ক্রিয়া প্রাণায়ম। যা আসলে শ্বাসযন্ত্রের ব্যায়াম এবং সেটার উন্নতি ঘটায়। কোভিড–১৯–এ যেখানে ফুসফুসই আক্রান্ত হচ্ছে বেশি, সেখানে এখন সারা বিশ্বই যোগের গুরুত্ব বুঝতে পারছে। কারণ প্রাণায়ম শ্বাসযন্ত্রকে আরও শক্তপোক্ত করে তোলে। রবিবার আন্তর্জাতিক যোগ দিবসে এই মন্তব্যই করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

তিনি বলেন, ‘‌আমাদের প্রতিরোধ ক্ষমতা জোরালো হলে রোগের বিরুদ্ধে লড়তে পারব। যোগের অনেক ক্রিয়া আছে যা প্রতিরোধ ক্ষমতা এবং হজমশক্তি বাড়ায়। কোভিড–১৯ আমাদের শ্বাসযন্ত্রকে আক্রমণ করছে। শ্বাসপ্রশ্বাসের ব্যায়াম প্রাণায়ম আমাদের সব থেকে বেশি সাহায্য করে শ্বাসযন্ত্রকে শক্তিশালী করতে।’ ষষ্ঠ আন্তর্জাতিক যোগ দিবসে দেশবাসীকে অভিনন্দন জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘‌এই দিনটা সার্বভৌম ভ্রাতৃত্ব এবং একতার দিন।

’‌ যোগের মাধ্যমে, বর্ণ বা লিঙ্গ বৈষম্য বিরোধী, সুস্থ–সবল গ্রহ তৈরি করতে সক্ষম হবে সবাই বলে আশাপ্রকাশ করেছেন মোদি। আন্তর্জাতিক যোগ দিবসে, এদিন যোগাসন করেন ১৮,০০০ ফুট উচ্চতায় লাদাখে কর্তব্যরত এবং বদ্রীনাথের কাছে ১৪০০০ উচ্চতায় অবস্থিত বসুধরা হিমবাহে কর্তব্যরত আইটিবিপি জওয়ানরা, রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ, প্রকাশ জাভরেকড়, ধর্মেন্দ্র প্রধান সহ বিভিন্ন বিজেপি মন্ত্রী এবং নেতানেত্রীরা।
ছবি:‌ এএনআই‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top