আজকালের প্রতিবেদন: আজ, বুধবার এবং শুক্রবার মাধ্যমিকের মার্কশিট দেওয়া হবে। আগে ঠিক হয়েছিল ২২ এবং ২৩ জুলাই এই মার্কশিট দেওয়া হবে। কিন্তু বৃহস্পতিবার লকডাউনের কারণে দিন বদল করা হয়েছে। মার্কশিট বিলি এবং একাদশে ভর্তির দিনগুলোয় পালা করে শিক্ষক এবং শিক্ষাকর্মীদের স্কুলে আসতে বলা হয়েছে। মঙ্গলবার এ নিয়ে নির্দেশিকা জারি করেছে মধ্যশিক্ষা পর্ষদ। নির্দেশে কবে কোন দিন কোন শিক্ষক এবং শিক্ষাকর্মীরা স্কুলে আসবেন, তা নিয়ে প্রধান শিক্ষক রোস্টার তৈরি করবেন। তবে যাঁদের বাড়ি কনটেনমেন্ট এলাকায়, তাঁদের স্কুলে আসার ব্যাপারে ছাড় দেওয়া হয়েছে।
পর্ষদ সূত্রে খবর, রাজ্যজুড়ে ৪৯টি ক্যাম্প অফিসের মাধ্যমে বুধবার নির্দিষ্ট স্কুলের প্রধানশিক্ষকদের হাতে এই মার্কশিট দেওয়া হবে। স্কুল বুধ এবং শুক্রবার পড়ুয়াদের হাতে তা তুলে দেবে। তবে মার্কশিট নিতে পড়ুয়া নয়, নির্দিষ্ট পড়ুয়ার অ্যাডমিট কার্ড এবং রেজিস্ট্রেশন সার্টিফিকেট নিয়ে অভিভাবকরা আসবেন। ১ আগস্ট থেকে শুরু হচ্ছে একাদশের ভর্তি প্রক্রিয়া। ৩১ আগস্ট পর্যন্ত চলবে। মার্কশিট বিলি এবং ভর্তির দিনগুলোয় কমপক্ষে ৫০ শতাংশ শিক্ষক এবং শিক্ষাকর্মীদের স্কুলে আসতে বলা হয়েছে। পুরো কাজটি স্বাস্থ্যবিধি মেনে করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। করোনা পরিস্থিতিতে শিক্ষকদের স্কুলে আসতে বলার এই নির্দেশের বিরোধিতা করেছে মাধ্যমিক শিক্ষক ও শিক্ষাকর্মী সমিতি–সহ অন্য সংগঠনগুলি। যা নিয়ে পর্ষদ সভাপতি কল্যাণময় গাঙ্গুলি বলেন, ‘অন্য শিক্ষকদের সহযোগিতা ছাড়া ‌প্রধানশিক্ষকের একার পক্ষে মার্কশিট দেওয়া এবং ভর্তি করানো সম্ভব নয়। 
সরকারি নির্দেশ মেনেই কমপক্ষে ৫০ শতাংশ শিক্ষককে আসতে বলা হয়েছে। যে শিক্ষক বা  শিক্ষাকর্মী স্কুল থেকে অনেক দূরে থাকেন, তিনি আসবেন কী আসবেন না তা প্রধান শিক্ষক বিবেচনা করবেন। কেউ অসহযোগিতা করলে, পর্ষদকে জানালে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’‌ 

জনপ্রিয়

Back To Top