ডাঃ সঞ্জয় ব্যানার্জি
হেপাটাইটিস বি রক্তবাহিত জীবাণু, লিভারের রোগের অন্যতম প্রধান কারণ। দুনিয়া জুড়ে প্রায় ৩০ কোটি মানুষ আক্রান্ত। এবং এই সংখ্যা ক্রমবর্ধমান। ভারতে গড়ে শতকরা ৪ জন এই ভাইরাস বয়ে চলেছেন। অনেকে নিজের অজান্তেই। অতিরিক্ত সংক্রমণ–‌প্রবণতা দেখা যায় তাঁদের, যাঁরা ইঞ্জেকশনে ড্রাগ–‌আসক্ত, যাঁদের বহু যৌন সঙ্গী কিংবা যাঁরা চিকিৎসা পরিষেবায় জড়িয়ে। ২০১৬ সালে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা অঙ্গীকার করে বিশ্বকে ২০৩০–‌এর মধ্যে হেপাটাইটিস বি–‌মুক্ত করার। এ–‌মুহূর্তে বিশ্বের অধিকাংশ দেশেই জাতীয় হেপাটাইটিস বি দূরীকরণ কর্মসূচি চালু আছে। আক্রান্ত জনগোষ্ঠীর মাত্র ১০%‌ যেহেতু তাঁদের সংক্রমণ সম্পর্কে অবহিত, তাই বেশি সংখ্যায় পরীক্ষা করার ওপর সর্বাধিক গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে।
সমাজবিদেরা আজ তিন ধরনের সমস্যার কথা উপলব্ধি করছেন: ১)‌‌ প্রাথমিক সমস্যা, যা আক্রান্ত ব্যক্তির মনোসামাজিক সমস্যা, ২)‌‌ আনুষঙ্গিক সমস্যা, যা আক্রান্ত ব্যক্তির প্রতি সামাজিক প্রতিক্রিয়ার ফল, ৩)‌‌ সুদূরপ্রসারী সমস্যা: এই সামাজিক প্রতিক্রিয়া যে ক্ষতি বয়ে আনে।
প্রাথমিক সমস্যার মধ্যে প্রথমেই পড়ে লিভার ক্যান্সার ও লিভার সিরোসিস–‌এর ভয়। হেপাটাইটিস বি রোগ নির্ণয় এক অজানা আশঙ্কায় ভাবিয়ে তোলে, আছে রোগের ক্রমবর্ধমানতা আর অকালমৃত্যুর ভয়। গুগ্‌ল ইউনিভার্সিটিতে রোগী হাতড়ে চলেন হেপাটাইটিস বি–‌র তথ্যভাণ্ডার। আর যত বিদ্যে বাড়ে, ততই বাড়ে ভয় ও আতঙ্ক!‌ আসে একাকিত্ব, হতাশা আর বাস্তবকে অস্বীকার করার জেদ। দুশ্চিন্তা ও হতাশা আরও ডালপালা মেলে, যখন এক দিন সত্যিই রোগের লক্ষণ দেখা দেয়। এর সঙ্গে যোগ হয় আর্থিক চিন্তা। নিয়মিত চিকিৎসা, ব্যয়বহুল পরীক্ষা–‌নিরীক্ষা চলতেই থাকে।
আজ, ২৮ জুলাই ওয়ার্ল্ড হেপাটাইটিস ডে–‌তে আমরা যখন আলোকিত আলোচনাসভায় বসেছি, তখন আমাদের চেতনায় থাকুক সেই মানুষগুলির না–‌বলা কথা আর অজানা উপলব্ধি। ওষুধ, পরীক্ষা আর ভ্যাকসিনের সঙ্গে প্রেসক্রিপশনে জায়গা করে নিক ভালবাসা, মমত্ব আর সহানুভূতি। গবেষকেরা ফাংশনাল কিওরের সঙ্গে আবিষ্কার করুন ফাংশনালি প্রোডাকটিভ লাইফ কীভাবে বজায় রাখা যায়। সমাজকর্মীরা এগিয়ে আসুন সৎ পরামর্শ দিতে, যাতে হেপাটাইটিস বি আক্রান্তরা বিষাদ কাটিয়ে যোগ দেন জীবনের মূল স্রোতে। সমাজবিদেরা আলোকপাত করুন মনোজগতের গহিন বনে, যে আলোর ছটায় দূর হয়ে যায় ভয়, অস্থিরতা, অনিশ্চয়তা। সর্বোপরি দেশচালকেরা নিয়ে আসুন বিশ্বাসের আবহ।
সবাইকে নিয়ে শুরু হোক নতুন ভোর!

জনপ্রিয়

Back To Top