আজকাল ওয়েবডেস্ক: মমতা ব্যানার্জি আগেই অনুরোধ করেছিলেন। এবার কোভিড মহামারীর আবহে এনইইটি এবং জেইই পিছিয়ে দেওয়া পক্ষে মঙ্গলবার সওয়াল করল বিশিষ্ট সমাজকর্মী গ্রেটা থানবার্গ। এছাড়া বিহার, অসম এবং গুজরাটে বন্যায় কয়েক লক্ষ দুর্গতদের জন্যও উদ্বেগ প্রকাশ করেছে ১৭ বছরের কিশোরী।
টুইটার পোস্টে গ্রেটা লিখেছে, ‘‌কোভিড–১৯ মহামারীর মধ্যে ভারতীয় ছাত্রছাত্রীদের জাতীয় পরীক্ষার জন্য বসতে বলাটা রীতিমতো অন্যায় যেখানে কয়েক লক্ষ মানুষ ভয়াবহ বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত। এনইইটি, জেইই পিছোনোর তাঁদের দাবির সমর্থন করছি আমি।’ টুইটারে গ্রেটার ৪১ লক্ষ ফলোয়ারদের মধ্যে ইতিমধ্যেই ওই টুইট ভাইরাল হয়ে গিয়েছে। সোশ্যাল মিডিয়ার সর্বত্র ‘‌মোদিজি পোস্টপোন এনইইটি, জেইই’‌ হ্যাশট্যাগে তা ঘুরতে শুরু করেছে। তবে গ্রেটার দাবিকে অসমর্থনও জানিয়েছে আরেক পক্ষ। 
জাতীয় পরীক্ষা সংগঠনের পূর্ব ঘোষণা মতো এবং সম্প্রতি শীর্ষ আদালতের রায়ের পর এনইইটি আগামী ১৩ সেপ্টেম্বর এবং ‌১–৬ সেপ্টেম্বর জেইই পরীক্ষা হওয়ার কথা। যদিও সুপ্রিম কোর্টের রায়ের পর এখনও পরীক্ষা পিছোনোর দাবি জানিয়ে চলেছেন ছাত্রছাত্রীরা। পশ্চিমবঙ্গ সহ বেশ কিছু রাজ্যও কেন্দ্রকে এই পরিস্থিতিতে পরীক্ষা পিছোনোর দাবি জানাচ্ছে।
ছবি: এএনআই  

জনপ্রিয়

Back To Top