দীপেন গুপ্ত, পুরুলিয়া: বছর দুয়েক আগে পুরুলিয়ার বিরহোড় সম্প্রদায়ের দুই কিশোরী প্রথম মাধ্যমিক পাশ করেছিল। তাদেরই একজন জানকী শিকারি এবার উচ্চমাধ্যমিক পাশ করল। তার প্রাপ্ত নম্বর ২১৭। জানকীই প্রথম বিরহোড় সম্প্রদায় থেকে উচ্চমাধ্যমিক পাশ করল। বাঘমুন্ডির পণ্ডিত রঘুনাথ মুর্মু আবাসিক বিদ্যালয়ে পড়াশোনা করত সে। জানকীকে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সংবর্ধনা জানানো হবে বলে জানিয়েছেন পুরুলিয়ার জেলাশাসক রাহুল মজুমদার।
বাঘমুন্ডির ভূপতিপল্লীতে বাড়ি জানকীর। বাবা দিনমজুর ভোলানাথ শিকারি বলেন, ‘‌জানকীর সাফল্য আমাদের সমাজের কাছে ইতিহাস হয়ে থাকবে।’‌ জানকীর কথায়, ‘‌বাবা–মা আমাদের পড়াশোনা চালিয়ে যেতে বলেছেন সবসময়। আমি পড়াশোনা করে শিক্ষক হতে চাই।’‌ অন্যদিকে, বাঘমুন্ডি থানার ভূপতিপল্লী গ্রামের ওই জনজাতির বসবাস ছাত্রী জবা শিকারি এ বছর মাধ্যমিক পাশ করেছে। এই দুই মেয়ের সাফল্যে নতুন স্বপ্ন বিরহোড় সম্প্রদায়ের মানুষের চোখে।
অভাবী সংসারের মেয়ে জবার বাবা ছোটবেলায় মারা যান। মা দিনমজুরের কাজ করে মেয়েকে মাধ্যমিক পাশ করিয়েছেন। সেই খবর পৌঁছয় বিধায়ক নেপাল মাহাতোর কানে। দেরি না করে জবার গ্রাম ভূপতিপল্লীতে গিয়ে বিধায়ক ছাত্রীটিকে সংবর্ধনা ও মিষ্টিমুখ করিয়ে তার পড়াশোনার সমস্ত দায়িত্ব নিয়েছেন। জবা মাধ্যমিকে ২১২ নম্বর পেয়ে পাশ করেছে।

জনপ্রিয়

Back To Top