আজকালের প্রতিবেদন: ১২ বছরের শৌভিক মণ্ডল, মাত্র ৫ বছর বয়সে আক্রান্ত হয় ডায়াবেটিসে। চিকিৎসকের পরামর্শে শুরু হয় ইনসুলিন ইঞ্জেকশন। এখন সে অনেকটাই সুস্থ। ১৪,০০০ রোগীর ওপর সমীক্ষা চালিয়েছে ‘‌গ্লোবাল ইনসুলিন ইঞ্জেকশন টেকনিক কোশ্চেনিয়ার’‌ এবং রিপোর্ট বলছে, ইনসুলিন ইঞ্জেকশন সম্পর্কে রোগী এবং তাঁর পরিবারের সচেতনতার হার অত্যন্ত কম। পাশাপাশি দেখা গেছে, প্রায় ৬৯.‌২ মিলিয়ন ডায়াবেটিস রোগীর মধ্যে ইনসুলিন নেন মাত্র ৩ মিলিয়ন। বলা বাহুল্য, যা ডায়াবেটিস চিকিৎসার উন্নতির পথে বাধা হয়ে দাঁড়াচ্ছে। কাজেই প্রয়োজন সচেতনতা। মঙ্গলবার ফোরাম ফর ইঞ্জেকশন টেকনিক অ্যান্ড থেরাপি এক্সপার্ট রেকমেন্ডেশন ইন্ডিয়া ২০১৭ এক আলোচনাসভার আয়োজন করে। উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট এন্ডোক্রিনোলজিস্ট ডাঃ শুভঙ্কর চৌধুরি, ডাঃ দেবাশিস মাজি, ডাঃ লরি হির্শ।  ডাঃ চৌধুরি‌র কথায়, ‘‌ইনসুলিনথেরাপির পরামর্শ দেওয়ার সময় ঠিক স্থান, গভীরতা নির্বাচন, ঠিক ডিভাইস ও নির্দিষ্ট দৈর্ঘ্যের সুচ নির্বাচনের দিকেও চিকিৎসকদের নজর রাখা প্রয়োজন। ছোট দৈর্ঘ্যের সুচ অনেক বেশি নিরাপদ।’‌‌‌‌‌

১২ বছরের শৌভিক মণ্ডল মধুমেহ রোগে আক্রান্ত। সাংবাদিক সম্মেলনে ডাঃ লরি হির্শ, ডাঃ শুভঙ্কর চৌধুরি ও ডাঃ দেবাশিস মাজির মধ্যে হাজির সে–‌ও। প্রেস ক্লাবে, বুধবার। ছবি:‌ দীপক গুপ্ত

জনপ্রিয়

Back To Top