চিকিৎসক, স্বাস্থ্যকর্মীদের হেনস্থায় এফআইআর! কঠোর পদক্ষেপ নিতে রাজ্যদের নির্দেশ কেন্দ্রের   

আজকাল ওয়েবডেস্ক: রোগীর মৃত্যু হলে পরিবারের তরফে হাসপাতালে ভাঙচুর কিংবা চিকিৎসক, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মীদের মারধর করা এদেশে কম হয় না। এবার সেই অন্যায় রুখতে তৎপর কেন্দ্রীয় সরকার। কেন্দ্রের তরফে প্রতিটি রাজ্যকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, করোনা আবহে চিকিৎসকদের মারধর তো দূর কোনওরকম হেনস্থা করলেই এফআইআর দায়ের হবে। মহামারী আইনের আওতায় হেনস্থাকারীর বিরুদ্ধে আইনি প্রক্রিয়া চলবে এবং তার জেরে জেলও হতে পারে। 
বছর কয়েক আগে প্রায়শই নিগ্রহ, হেনস্থার শিকার হওয়ার প্রতিবাদে ধর্নায় বসেছিলেন কলকাতার চিকিৎসকরা। নিরাপত্তার দাবিতে তাঁদের সেই আন্দোলনে সামিল হয়েছিল গোটা দেশের চিকিৎসক কুল। এখন পরিস্থিতি আরও গুরুতর। করোনার সময়ে জীবনের ঝুঁকি নিয়েই অক্লান্ত পরিশ্রম করে চলেছেন চিকিৎসকরা। তারপরেও মাঝেমধ্যেই হেনস্থার শিকার হতে হচ্ছে তাঁদের। তা বন্ধ করতে উদ্যোগী হল কেন্দ্র। 
শনিবার এ নিয়ে সমস্ত রাজ্য এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলোকে চিঠি পাঠিয়েছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র সচিব অজয় ভাল্লা। চিঠিতে বলা হয়েছে, চিকিৎসক বা স্বাস্থ্যকর্মীদের প্রতি হেনস্থার নেতিবাচক প্রভাব পড়তে পারে স্বাস্থ্য পরিষেবায়। হুমকি দেওয়া বা হামলার ঘটনা তাঁদের মনোবলকে নষ্ট করতে পারে। এর ফলে তৈরি হতে পারে নিরাপত্তাহীনতা। যা স্বাস্থ্য পরিষেবা ব্যবস্থায় নেতিবাচক প্রভাব ফেলতে পারে। ভাল্লা এও বলেন, স্বাস্থ্যকর্মীদের হেনস্থা করা হলে কঠোর ব্যবস্থা নিএত হবে। প্রয়োজনে করতে হবে এফআইআর।