আজকাল ওয়েবডেস্ক: এনইইটি, জেইই পরীক্ষা সুপ্রিম কোর্টের আদেশানুসারে হওয়ার কথা আগামী সেপ্টেম্বরে। কিন্তু তবুও কোভিড মহামারীর কারণ দেখিয়ে সেই পরীক্ষা পিছোনোর দাবিতে ফের আদালতের দ্বারস্থ বিভিন্ন রাজ্য এবং বিরোধী দলগুলি। পরীক্ষা পিছোনোর দাবি জানিয়েছে ১১টি রাজ্যের ১১জন ছাত্রছাত্রীদের প্রতিনিধি দলও। কিন্তু দেশের বিভিন্ন আইআইটি কলেজের ডিরেক্টররা মনে করছেন, এভাবে পরীক্ষা পিছিয়ে দিলে ছাত্রছাত্রীদের কেরিয়ারের একটা বছর পুরোপুরি শূন্য হয়ে যাবে। এবং তার সঙ্গেই এই পরীক্ষাগুলির যেকোনও দ্রুত বিকল্প উল্টে শিক্ষার মানের অবনতি ঘটাবে। যার প্রভাব পরে বোঝা যাবে।
আইআইটি রুরকির ডিরেক্টর অজিত কুমার চতুর্বেদী যেমন বললেন, ‘‌এমনিতেই এই মহামারী অনেক ছাত্রছাত্রী এবং শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পঠনপাঠনের পরিকল্পনায় গন্ডগোল বাধিয়েছে এবং এখনই এই ভাইরাস দূর হওয়ার কোনও উপায়ও আমরা দেখছি না। আমরা এটাকে শূন্য অ্যাকাডেমিক বছর করতে চাই না কারণ এতে অনেক ছাত্রছাত্রীর উজ্জ্বল ভবিষ্যতে প্রভাব পড়বে।’‌
আইআইটি খড়গপুরের ডিরেক্টর বীরেন্দ্র তিওয়ারির মতে, ‘‌দক্ষতা নিরুপণে এই পরীক্ষাগুলির সারা বিশ্বে স্বীকৃতি আছে এবং বিশ্বের মধ্যে অন্যতম কঠিন এবং সম্মানীয় পরীক্ষা বলেই ধরা হয়। এই পরীক্ষার কোনও দ্রুত বিকল্প স্বাভাবিকভাবেই এর মতো সুউচ্চ মর্যাদার হতে পারে না।’‌
আইআইটি ডিরেক্টররা ছাত্রছাত্রীদের কাছে আবেদন করেছেন, যে তাঁরা যেন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পরীক্ষা নেওয়ার ব্যবস্থার উপর ভরসা রাখেন। সরকারও ছাত্রছাত্রীদের সুরক্ষার বিষয়টি মাথায় রাখছে বলেই দাবি করেছেন ডিরেক্টররা।  

জনপ্রিয়

Back To Top